৯ ডিসেম্বর বিশ্বজিৎ দিবস, ঘোষণা দিলেন এরশাদ

0
55
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা (১২জানুয়ারী) : ৯ ডিসেম্বরকে বিশ্বজিৎ দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা দিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনি এ প্রস্তাব গ্রহণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট আহ্বান জানান।  শনিবার বেলা ১১টায় বিশ্বজিতের বাবা-মা’র সঙ্গে দেখ‍া করেন এবং যে জায়গায় বিশ্বজিৎকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছিল সেখানে দাঁড়িয়ে তিনি এ ঘোষণা দেন।

এ সময় এরশাদ বিশ্বজিতের বাবা-মাকে শাস্তনা দেন এবং তার মায়ের হাতে ৫০ হাজার টাকা চেক হস্তান্তর করেন।

এরশাদ বলেন, দেশে অনেক হত্যাকাণ্ড হয়েছে। কিন্তু এমন নির্মম হত্যাকাণ্ড জাতি কখনো দেখেনি। যে কারণে এই  ৯ ডিসেম্বর জাতির জন্য কলঙ্ক দিবস হিসেবে পালন করা উচিত।

তিনি বলেছেন, নূর হোসেনকে কারা হত্যা করেছে জানিনা। কিন্তু তার নামে চত্ত্বর করা হয়েছে। আমি আহবান জানানো বিশ্বজিৎকে যেখানে কুপিয়ে হত্যা করা  হয়েছে সেখানে বিশ্বজিতের নামে চত্ত্বর করা হোক। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। বিশ্বজি‍ৎ যেন মানুষের মাঝে সারা জীবন অমর হয়ে থাককে পারে এজন্য এটা করা উটিত।

তিনি বলেন, বিশ্বজিতের ময়না তদন্ত নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। সারা দেশবাসী দেখলো যে বিশ্বজিৎকে কিভাবে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু অপরাধীদের বাচাঁনোর চেষ্টা করা হচ্ছে। পোস্ট মর্টেমে নাকি লেখা হয়েছে তার গায়ে কোনো কোপের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। কিভাবে তাতে মারা হয়েছে দেশবাসীই এর প্রমাণ।

তিনি বলেন, আমি অনুরোধ করবো অপরাধীদের শাস্তি দিন। মানুষ অপরাধ করে পার পায়না। যাতে ভবিষ্যতে আর ধরণের ঘটনা না ঘটে। এজন্য হত্যাকারীদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত।  

এ সময় এরশাদ বিশ্বজিৎ হত্যাকাণ্ড স্থলে পুষ্প‍ার্ঘ্য অর্পণ করেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন জাতীয় পার্টির মাহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলু, প্রেসিডিয়াম সদস্য মহানগর দক্ষিণের সভাপতি কাজী ফিরোজ রশিদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আব্দুর সবুর আসুদ প্রমুখ।

নিউজরুম

শেয়ার করুন