বাসে ধর্ষণের চেষ্টা, লাফিয়ে পড়ে রক্ষা

0
252
Print Friendly, PDF & Email

বাস নষ্টের কথা বলে নামিয়ে দেওয়া হয় যাত্রীদের। বাসচালক নূর উদ্দিন (৩৫) ও তাঁর সহকারী রেখে দেন এক নারী যাত্রীকে। বাসটি কিছুদূর নেওয়ার পর ওই নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন চালক ও তাঁর সহকারী। জানালা থেকে লাফিয়ে রক্ষা পান নারী। চিৎকার দিলে লোকজন এসে ওই বাসচালককে আটক করে।

আজ বুধবার বিকেল ৩টার দিকে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চূড়খাইয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে এই ঘটনা ঘটে।
 
ময়মনসিংহের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু মোহাম্মদ ফজলুল হক জানান, ঢাকার মহাখালী বাসস্ট্যান্ড থেকে ছেড়ে আসা শেরপুরগামী যাত্রীবাহী বাসের চালক নূর উদ্দিন মহাসড়কের ত্রিশাল উপজেলার কাজীর শিমলা স্থানে বাসটি থামান। এ সময় তিনি বাস নষ্ট হয়ে গেছে যাত্রীদের নামিয়ে দেন। এ সময় বাসে শুধু একজন নারী যাত্রী ছিলেন। কিছুক্ষণ নূর উদ্দিন বাস চালিয়ে সামনের দিকে নিয়ে এসে চূড়খাই নামক স্থানে রাস্তার পাশে বাস থামান। নূর উদ্দিন ও তাঁর সহকারী নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় কৌশলে ওই নারী জানালা দিয়ে লাফিয়ে পড়ে চিৎকার শুরু করেন। স্থানীয় লোকজন এসে চালক নূর উদ্দিনকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। টহল পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) নূরুল হুদার নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নারীকে উদ্ধার এবং নূর উদ্দিনকে বাসসহ আটক করে। আর চালকের সহকারী পালিয়ে যান।

ওসি জানান, ওই নারীর বাড়ি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলায়। তিনি ভুলে কিশোরগঞ্জের বাসে না উঠে শেরপুরের বাসে উঠে পড়েছিলেন।

আটক চালক নূর উদ্দিনের বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার নগুয়া গ্রামে। এ ব্যাপারে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

শেয়ার করুন