কেন্দুয়ায় বিএনপি নেতাকে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা

0
833
Print Friendly, PDF & Email

আওয়ামী লীগ নেতা সামছু হত্যার প্রধান আসামি বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলী (৬০) কে নৃশংস ভাবে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকেরা।

এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের বাড়িঘর ভাংচুর লুটপাট ও আগুন দিয়ে কয়েকটি ঘর পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাত সাড়ে ১১ টায় নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের খিদিরপুর গ্রামে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুল মোমেন, এ.এস.পি সার্কেল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রুহুল আমীন, উপজেলা চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন ভূঞা, বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতা রফিকুল ইসলাম হিলালী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা দেখে পার্শ্ববর্তী নিজ বাড়ি খিদিরপুর যাওয়ার পথে উৎপেতে থাকা দুবৃর্ত্তরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে নৃশংস ভাবে কুপিয়ে ও জবাই করে বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলীকে হত্যা করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে রাতেই কেন্দুয়া থানার ওসি অভি রঞ্জন দেব সংগীয় ফোর্স নিয়ে নিহত মোহাম্মদ আলীর লাশ উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার দুপুরে নেত্রকোনা মর্গে প্রেরণ করে।

এলাকাবাসী জানান, ১৮ মার্চ প্রকাশ্যে দিনের বেলায় খিদিরপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা সামছু মিয়া (৫২) কে সাহিতপুর থেকে ঈশ্বরগঞ্জ যাওয়ার পথে টক্কা গাড়ী থেকে নামিয়ে নিহত বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলী ও তার লোকজন নির্মম ভাবে কুপিয়ে হত্যা করে। ওই ঘটনায় প্রধান ও ২নং আসামি মোহাম্মদ আলীর ছেলে ওয়াসিম আকরাম আদালত থেকে জামিন নিয়ে কিছুদিন পূর্বে বাড়িতে আসেন।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্বকাপ ফুটবলে আর্জেন্টিনা ও নাইজেরিয়া মধ্যকার খেলা দেখে বাড়ির কাছাকাছি যাওয়ার পর দুবৃর্ত্তদের হামলার শিকার হয়ে নিহত হন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলা হয়নি।

শেয়ার করুন