নওগাঁর ধামইরহাটে আ’লীগ নেতার লিঙ্গ কর্তন

0
118
Print Friendly, PDF & Email

 

নওগাঁ প্রতিবেদক,(৪ফেব্রুয়ারী) : নওগাঁর ধামইরহাটে লম্পট আ’লীগ নেতার সুন্দরী গৃহবধূকে জোরপুর্বক ধর্ষণ করতে গিয়ে লিঙ্গ কর্তন করা হয়েছে।

 

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, রবিবার রাত ৯ টায় ধামইরহাট উপজেলার জগদ্দল ঘোনাপাড়া গ্রামের দবির উদ্দীনের পুত্র আওয়ামীলীগ নেতা জিয়া (৩৫) একই গ্রামের রহমত আলীকে কৌশলে ঢাকায় চাকুরীর লোভ দেখিয়ে পাঠিয়ে দেয়। সোমবার ভোর ৪টার সময় সুযোগ সন্ধানি জিয়া রহমতের সুন্দরী বধূ (২০)কে ঘরে একা পেয়ে জোর পুর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে।

 

 এ সময় নিজের সম্মান রক্ষার্থে গৃহবধূ ব্লে­ড দিয়ে লম্পট জিয়ার লিঙ্গ কর্তন করে। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে গৃহবধূ ও গ্রামের মাতববর আব্দুর রহিম ও আব্দুর রাজ্জাক জানান, জিয়া দীর্ঘদিন ধরে এই গৃহবধূকে কু প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আহত জিয়াকে রাতেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 

 

নওগাঁর পোরশা সীমান্তে দুই গরু ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বিএসএফ

 

 

নওগাঁ প্রতিবেদক,(৪ফেব্রুয়ারী) : নওগাঁর পোরশা সীমান্তে কাওছার (২৫) ও কামাল (২৭) নামের দুই গরু ব্যবসায়ীকে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিএসএফ আটকে রেখেছে। পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে জেলার পোরশা উপজেলার দোয়ারপাল ২৩২ নং পিলারের কাছাকাছি কাওছার ও কামাল নামের দুই গরু ব্যবসায়ী গরু আনার উদ্দেশ্যে ভারতের অভ্যন্তরে প্রবেশ করলে ভারতের তিস্তাপাড়া বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা তাদের দুজনকে আটক করে।

 

পোরশা উপজেলার বিষনোপুর গ্রামের আফছার উদ্দীনের পুত্র কাওছার এবং একই উপজেলার দোয়ারপাল গ্রামের আজিজুল ইসলামের পুত্র কামাল হোসেন। এ ঘটনা জানতে পেরে নওগাঁর পত্নীতলায় ৪৬ বিজিবি তাদেরকে ফেরত আনার ব্যাপারে পত্র প্রেরন করেছে।  

 

 

নওগাঁয় শান্তিপূর্ন ভাবে হরতাল পালিত

 

 

নওগাঁ প্রতিবেদক,(৪ফেব্রুয়ারী) : বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম ও স্বনির্ভর সম্পাদক এ্যাডঃ রুহুল কুদ্দুছ তালুকদার দুলুসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের নিঃশর্ত মুক্তি এবং যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ ও সাংবাদিক মাহমুদুর রহমানের অবরুদ্ধ থেকে মুক্তির দাবীতে নওগাঁয় শান্তিপূর্ন ভাবে হরতাল পালিত হয়েছে।

 

সোমবার সকাল থেকেই শহরের প্রধান সড়কের মুক্তির মোড়, ঢাকা বাস ষ্ট্যান্ড, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল, তাজের মোড়, দয়ালের মোড় ও আদালত চত্বর এলাকাসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থান গুলোতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। শহরের রাস্তা ঘাট দোকানপাট, অফিস ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকে। ব্যাংক বীমা খোলা থাকলেও কোন লেনদেন হয়নি।

 

নওগাঁ থেকে দুরপাল্লার কোন বাস ট্রাক ছেড়ে যায়নি।শহরের বিভিন্ন স্থানে হরতালের সমর্থনে নেতা কর্মীকে অবস্থান করতে দেখা গেছে। শহরের বিভিন্ন স্থানে মিছিল হয়েছে। বেলা ১২টার দিকে খন্ড খন্ড মিছিল সহকারে ব্রীজের মোড়ে সমাবেশ করেছে জেলা বিএনপি।

 

জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিকী নান্নুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও পৌর মেয়র নাজমুল হক সনি, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি জালাল আহমেদ বকুল, সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, সাবেক এমপি রায়হানা আকতার রনি, সহ-সভাপতি বদরুল আলম নয়ন চৌধূরী, মাষ্টার হাফিজুর রহমান ও এ্যাডঃ রফিকুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আঃ মতিন তালুকদার, শহর বিএনপির সভাপতি নাছির উদ্দীন আহমেদ, সাধারন সম্পাদব নুরুন্নবী সাজা, মহিলা দলের নেত্রী শবনম মোস্তারী কলি, জেলা যুবদলের সভাপতি বায়েজিদ হোসেন পলাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক দেওয়ান ফারুক হোসেন, জেলা যুবদলের নেতা খালিদ হাসান লিপ্ত, জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক শফিউল আজম ওরফে ভিপি রানা, উজ্জল, পবলু বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা অবিলম্বে কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তির দাবী জানান। নইলে সারা দেশে বৃহত্তর আন্দোলনের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্ত করে ছাড়ব।

নিউজরুম

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন