নওগাঁয় ব্রিটিশ আমলে নির্মিত ব্রীজের একপাশ ভেঙ্গে গেছে

0
195
Print Friendly, PDF & Email

নওগাঁর রাণীনগরের আবাদপুকুর-রাণীনগর রাস্তায় বিট্রিশ আমলে নির্মিত ‘হাতিরপুল’ নামক ব্রীজটির একপাশ ভেঙ্গে পরেছে। ফলে চলাচলে ঝুকিপূর্ণ হওয়ায় ইতি মধ্যে গত দু’দিন ধরে ব্রীজের উপর দিয়ে মালবাহি ট্রাক, ট্র্যাক্টর, যাত্রীবাহি বাসসহ ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এছাড়া সিএনজি, আটোরিক্সা, ভ্যান সহ বিভিন্ন ধরণের যানবাহন চলছে ঝুঁকি নিয়ে। যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা করছেন পথযাত্রীরা ।

জানা গেছে, রাণীনগর উপজেলা সদর থেকে ২ মাত্র কিলোমিটার পূর্ব দিকে রাণীনগর-আবাদপুকুর সড়কে অবস্থিত বিট্রিশ আমলে ইট-শুরকি দিয়ে নির্মিত হাতিরপুল নামক এই ব্রীজটি । যুগ যুগ ধরে সংস্কার কাজ না করায় বর্তমানে ব্রীজটি মরণফাঁদে পরিনিত হয়েছে। গত কয়েকদিন আগে হঠাৎ করেই ব্রীজের দক্ষিন পাশ দেবে উপরের গাডার হাল ধরে যায় । এতে সাবধানতা অবলম্বন করে যান বাহন চলা-চল করলেও গত বুধবার বিকেল থেকে মালবাহী ভারী যান চলা-চল বন্ধ হয়ে পরেছে। এছাড়া ব্রীজের উপর দিয়ে কেবলমাত্র সিএনজি, অটো চার্জার, ভ্যানসহ মটরসাইকেল ও খালী যান চলাচল করছে। যে কোন সময় ভেঙ্গে পরে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে । ব্রীজটির এমন জীর্ণ দশায় ভারী যান চলাচল করতে না পারায় চরম দূর্ভোগে পরেছেন ব্যবসায়ীরা ।

অপর দিকে ব্রীজটি ভেঙ্গে পরলে নওগাঁ জেলা সদরসহ রাণীনগর উপজেলার সাথে সম্পন্ন যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাবে রাণীনগরের পূর্বাঞ্চলের বাসিন্দাদের। ব্রিটিশ আমলে রক্তদহ বিলের দক্ষিণ পার্শ্বে রতনডারী খালের উপর সেই সময় চুন-শুরকি দিয়ে নির্মান করা হয় এই ব্রীজটি। ব্রীজটির উপরিভাগ হাতির পিঠের ন্যায় ঢালু হওয়ায় হাতির পুল নামে পরিচিত পায় এই ব্রীজটি। দীর্ঘ দিন ধরে ব্রীজটি সংস্কার না করায় ব্রীজের পিলার ও গার্ডারের ইট খুলে খুলে পড়ে যাচ্ছে। দ্রুত ব্রীজটির সংস্কার কাজ করা না হলে যে কোন সময় প্রাণহানীর মত ঘটনা ঘটতে পাড়ে বলে এলাকাবাসি আশংকা করছেন।

নওগাঁর সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হামিদুল হক জানান, উপজেলা সদর থেকে আবাদপুকুর পর্যন্ত প্রায় ১৪ কিলোমিটার সড়কের পুন:নির্মান কাজের জন্য ইতিমধ্যেই একনেকে অনুমোদন হয়েছে। সড়কটি ১৮ ফিট প্রস্ত সহ এই ব্রীজের স্থানে নতুন একটি ব্রীজ সহ কয়েকটি টি কালভার্ট নির্মাণের জন্য আগামী মাসেই দরপত্র আহবান করা হবে। তবে ঝুকিপূর্ণ এই ব্রীজটি সংস্কার করে খুব দ্রুত চলা চলের উপযোগী করা হবে ।

শেয়ার করুন