দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দুটি ট্রেনের মুখোমুখী সংঘর্ষ: আহত ৫০ জন

0
185
Print Friendly, PDF & Email

শাহিনুর রহমান সোহাগ, হিলি স্থলবন্দর (হাকিমপুর) প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের ফুলবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনে দুটি আনত্মঃনগর ট্রেনের মুখোমুখী সংঘর্ষে ৫০ জন আহত হয়েছে৷ আহতদের মধ্যে গুরম্নতর অবস্থায় ৪ জনকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং ১৮ জনকে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েভর্তি করা হয়েছে৷ অপর আহত ২৮ জনকে প্রাথমিক চিকিত্‍সা দেয়া হয়৷

আজ মঙ্গলবার ভোর রাত ৩টা ৪০ মিনিটে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী রেলওয়ে ষ্টেশনে এই দুর্ঘটনা ঘটে৷ ২টি আনত্মঃনগর ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় তদনত্মে পশ্চিমাঞ্চল রেল বিভাগ ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদনত্ম টীম গঠন করেছে৷ দুর্ঘটনার ফলে দিনাজপুরসহ ৮ জেলার সাথে সারাদেশের ৭ ঘন্টা রেলযোগাযোগ বন্ধ থাকার পর রেলওয়ে বিভাগের তত্বাবধানে পুনরায় রেল চলাচল শুরম্ন হয়েছে৷

ফুলবাড়ী রেলওয়ে ষ্টেশনে অবস্থানরত প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, আজ মঙ্গলবার ভোর ৩টা ৪০ মিনিটে সৈয়দপুর থেকে খুলনাগামী সীমানত্ম এঙ্প্রেস আনত্মঃনগর ট্রেনটি ফুলবাড়ী রেলওয়ে ষ্টেশনের ১ নং লাইনে দাঁড়িয়ে ছিল৷ এ সময় ষ্টেশনের কর্তব্যরত পয়েন্টম্যান ইউনুস ও সেকেন্দার আলীর ভুলের কারনে ঢাকা থেকে দিনাজপুরগামী একতা এঙ্প্রেস আনত্মঃনগর ট্রেনটি একই লাইনে ঢুকে পড়লে স্টেশনের দাঁড়িয়ে থাকা সীমানত্ম এঙ্প্রেস ট্রেনটিকে সজোরো ধাক্কা দেয়৷ এতে দুটি ট্রেনের ৫টি বগি লাইনচু্যত হয়৷ এর মধ্যে সীমানত্ম এঙ্প্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনটি দুমড়ে মুচড়ে যায়৷

এই দুর্ঘটনায় দুটি ট্রেনের কমপক্ষে ৫০ জন যাত্রী আহত হয়৷ আহতদের মধ্যে ২২ জনকে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েভর্তি করা হয়৷ আহত রোগীদের মধ্যে ৪ জনের অবস্থার অবনতি দেখা দিলে বেলা ১১ টায় ওই ৪ জনকে দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ আহতরা হলেন, দিনাজপুর সদর উপজেলার রাজবাটী মহল্লার মৃত মনির উদ্দীনের পুত্র আমজাদ হোসেন (৫৫), চিরিরবন্দর উপজেলার নানিয়াটকর গ্রামের আজিমুদ্দিনের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৭০) ও তার পুত্র আব্দুল মান্নান (৩৫) এবং ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার পুটিয়াপাড়া গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের পুত্র রাজু মিয়া (১৯)৷

এদিকে এই দুর্ঘটনার পর দিনাজপুরসহ ৮টি জেলার সাথে সারাদেশের রেলযোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়৷ এরপর সকাল ১০টায় বিকল্প ব্যবস্থায় ২ নং লাইন দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরম্ন হয়৷ ঘটনা পরিদর্শনে আসা রেলওয়ের পার্বতীপুর কেন্দ্রীয় লোকোমোটিভ কারখানার প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী হাসান মনসুর জানান, প্রাথমিক তদনত্মে ষ্টেশন মাস্টার ও পয়েন্টম্যানের অবহেলার কারনেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে প্রমান মিলেছে৷ তিনি আরো জানান, ঘটনা তদনত্মে রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চল জোনের বিভাগীয় প্রকৌশলী (যান্ত্রিক)কে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ঠ একটি তদনত্ম টিম গঠন করা হয়েছে৷

এদিকে দুর্ঘটনার পর সকাল সাড়ে ১০টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসক আহমেদ শামীম আল রাজী ও পুলিশ সুপার সারওয়ার মুর্শেদ শামীম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন৷ দুর্ঘটনার পর থেকেই ফুলবাড়ী রেলওয়ে ষ্টেশন মাস্টার আব্দুল হামিদসহ ফুলবাড়ী স্টেশনের সকলেই পলাতক রয়েছে৷

শেয়ার করুন