লঞ্চডুবি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৯

0
299
Print Friendly, PDF & Email

পাটুরিয়ায় মালবাহী জাহাজের ধাক্কায় লঞ্চডুবির ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৯ জনে।

ডুবে যাওয়ার প্রায় ১৬ ঘণ্টা পর সোমবার ভোরের দিকে পদ্মা পারাপারের লঞ্চ এমএল মোস্তফাকে টেনে তীরের কাছে নিয়ে আসা হয়েছে।

উল্টে থাকা লঞ্চটি সোজা করা সম্ভব হলে ভেতরে আরও লাশ আছে কি না নিশ্চিত হওয়ার জন্য ডুবুরিরা সেখানে তল্লাশি চালাবেন। তারপর উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত করা হবে বলে জেলা প্রশাসক রাশিদা ফেরদৌস জানিয়েছেন।

তিনি জানান, সকাল পর্যন্ত যে ৬৯টি লাশ ডুবুরিরা উদ্ধার করেছেন তার মধ্যে ৪৯ জনের লাশ সনাক্ত করার পর স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পাটুরিয়া ঘাটে বসানো নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে লাশ হস্তান্তরের সময় নিহতদের লাশ সৎকারের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্বজনদের ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হচ্ছে।  

মানিকগঞ্জের শিবালয় থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, রোববার দুপুর ১২টার দিকে পাটুরিয়ার ঘাট থেকে দৌলতদিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার পরপরই মাঝনদীতে দুর্ঘটনায় পড়ে এমএল মোস্তফা-৩ নামের লঞ্চটি।

নগরবাড়ী থেকে ঢাকাগামী কার্গো জাহাজ এমভি নার্গিস-১ লঞ্চটির মাঝামাঝি অংশে ধাক্কা দিলে ডান দিকে কাত হয়ে সেটি ডুবে যায়।

লঞ্চডুবির পরপরই আশেপাশের লোকজন নৌকা ও ট্রলার নিয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করে। এ সময় বেশ কিছু যাত্রী সাঁতরে অন্য লঞ্চ ও ট্রলারে উঠতে সক্ষম হন।

এ দুর্ঘটনার জন্য দায়ী কার্গো জাহাজ এমভি নার্গিস-১ এর চালকসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি করেছে সমুদ্র পরিবহন অধিদপ্তর।

শেয়ার করুন