মাদারীপুরে গাছের সঙ্গে বাসের ধাক্কা, নিহত ৪

0
308
Print Friendly, PDF & Email

মাদারীপুরের সদর উপজেলায় ঢাকাগামী নাজমুল-২ পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস রাস্তার পাশে গাছের সঙ্গে সজোরে ধাক্কা খেয়ে চারজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ৩৪ জন।

আজ রোববার বেলা পৌনে একটার দিকে উপজেলার ঘটকচর ইউনিয়নের ঘটকচর মোড়ে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তবে ঘটনার পরপরই মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক জি এম জাফরুল্লাহ ছয়জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছিলেন। পরে অবশ্য তিনি তিনজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। এর কিছুক্ষণ পর ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় আহত একজন মারা গেছেন বলে জানা যায়। তবে নিহত ব্যক্তিদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

গুরুতর আহত ব্যক্তিদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সকালে বাসটি বরগুনা থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়। বেলা একটার দিকে পথে মোস্তফাপুর টেক্সটাইল মিল পার হওয়ার পর বাসের চালক নিয়ন্ত্রণ হারান। এ সময় গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগার পর বাসটি রাস্তার এক পাশে কাত হয়ে যায়। ছবি: খায়রুল আলমরাস্তার পাশের বড় একটি গাছের সঙ্গে বাসটির সজোরে ধাক্কা লাগে। এতে বাসটি রাস্তার পাশে কাত হয়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।
বাসের আহত যাত্রী সালমা বেগম জানান, দুর্ঘটনার সময় বাসের চালক মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন। এ কারণে ভয়াবহ এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।
দুর্ঘটনার পর হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধারকাজ চলার সময় ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের দুই পাশে দুই কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। পুলিশ ও র্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত ও নিহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করেন।
বিকেল চারটায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে উদ্ধার কাজ তদারকি করছিলেন। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে ১০ হাজার টাকা এবং আহত ব্যক্তিদের প্রত্যেককে চিকিত্সার জন্য পাঁচ হাজার করে টাকা সহায়তা দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

শেয়ার করুন