মির্জা ফখরুলের নিন্দা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী কারাগারে

0
150
Print Friendly, PDF & Email

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। গতকাল চট্টগ্রাম আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে আদালত আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উসকানির অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বিএনপি নেতা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। বেলা ১২টার দিকে মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধার আদালতে হাজির হয়ে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে কোতোয়ালি থানায় দায়ের করা মামলায় জামিন আবেদন করেন। এই মামলায় তিনি উচ্চ আদালতের জামিনে ছিলেন। গতকাল রবিবার স্থায়ী জামিন আবেদনের শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষ বিরোধিতা করলে আদালত শুনানি শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। : সেই জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় তিনি গত ৭ অক্টোবর নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এছাড়া গত ১ অক্টোবর জামিন স্থগিত চেয়ে করা রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন খারিজ করে দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির আপিল বেঞ্চ। আদালত ২১ অক্টোবর জামিন আবেদনের পূর্ণাঙ্গ শুনানি হওয়া পর্যন্ত জামিন বর্ধিত করেছিলেন। আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট আবদুস সাত্তার। তিনি বলেন, গত ৭ অক্টোবর এই মামলায় আমরা স্থায়ী জামিন চেয়ে আবেদন করি। আদালত আজকে পূর্ণাঙ্গ জামিন শুনানির দিন ধার্য করেছেন। এতদিন তিনি উচ্চ আদালতের দেয়া জামিনে ছিলেন। গতকাল জামিন শুনানি শেষে আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। আমরা এই আদেশে সন্তুষ্ট না। উচ্চ আদালতে পুনরায় আবেদন করবো। ইনশাআল্লাহ তিনি জামিনে মুক্তি পাবেন। : উল্লেখ্য, গত ৪ আগস্ট তার বিরুদ্ধে নগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর নাশকতার উসকানি ও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারা ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫/৩ ধারায় মামলা হয়। এদিকে আমীর খসরুর জামিন আবেদনকে ঘিরে আদালত এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে আগ থেকেই। সকাল ১০টা হতে চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় আইনজীবী, প্রশসনের কর্তা ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেয়া হয়নি। ডিবি পুলিশ চেক করে জনসাধারণকে আদালত এলাকায় প্রেবেশ করতে দেয়। এ ছাড়াও সাড়ে ১২টা পর্যন্ত কোনো আদালত বসেনি। : আমীর খসরুর জামিন বাতিলের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর, সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান এক বিবৃতিতে নিন্দা জানিয়েছেন। নেতৃবৃন্দ তার মুক্তি দাবি করেন। : আমীর খসরুকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে কারাগারে প্রেরণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতারা। গতকাল রবিবার আমীর খসরু চট্টগ্রাম আদালতে জামিনের জন্য গেলে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণ করে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচএম রাশেদ খানের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি নগরীর লাভলেইন মোড়, এনায়েত বাজার হয়ে তিনপুলের মাথায় গিয়ে শেষ হয়। : এ সময় মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান, তৌহিদুল ইসলাম রাসেল, বজল আহমদ, আলমগীর, মহানগর ছাত্রদল নেতা রিফাত হোসেন শাকিল, শহিদুজ্জামান রাজিবুল হাসান রানা, আরফাত আলম, সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। :চট্টগ্রাম ব্যুরো, দিনকাল

শেয়ার করুন