‘ইসির পদক্ষেপ নিরপেক্ষ নির্বাচনের পথে অন্তরায়’

0
531
Print Friendly, PDF & Email

জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) আয়োজিত ইফতার মাহফিলে বক্তব্য দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ছবি : স্টার মেইল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘সংসদ সদস্যদের যদি নির্বাচনী প্রচারণায় নামতে দেওয়া হয় তাহলে স্থানীয় ও সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কোন মতেই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী হবে না।’ তিনি আরো বলেন, ‘ইসির (নির্বাচন কমিশন) এই পদক্ষেপ নিরপেক্ষ নির্বাচনের পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াবে।’

আজ শুক্রবার রাজধানীর গুলশানে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল। জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) ওই ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নির্বাচনী বিধিতে ছিল, সংসদ সদস্য বা মন্ত্রীরা নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না। এই নির্বাচন কমিশন আওয়ামী লীগের দাবির কাছে নতি স্বীকার করে সংসদ সদস্যদের নির্বাচনী প্রচারণায় নামার জন্য অনুমোদন দিয়ে কাজ করছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা মনে করি, এখনও আইন পাস হয়নি। সুতরাং এটা থেকে তাঁরা (ইসি) বিরত থাকবেন এবং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করবেন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পশ্চিমবঙ্গ সফর প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ভারতে গেছেন, খুব ভালো কথা। পশ্চিম বাংলায় গেছেন এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শান্তিনিকেতনে তিনি বাংলাদেশের ভবন নির্মাণ করেছেন সেটিও অত্যন্ত ভালো কথা। সেই সঙ্গে আমাদের ও জনগণের প্রশ্ন, আমাদের যে পাওনা ও সমস্যাগুলো রয়েছে, এই সমস্যাগুলো সম্পর্কে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) কথা বলছেন কি না?’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘যেদিন আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করেছিল, তখন তারা বলেছিল, এখন শুধু সময়ের ব্যাপার, আমরা তিস্তা নদীর চুক্তি করতে পারব। কিন্তু এখন প্রায় ৯ বছর হয়ে গেল, এখন পর্যন্ত তিস্তা নদীর এক ফোঁটা পানির ব্যাপারেও চুক্তি হয়নি।’ তিনি আরো বলেন, ‘শুধু তিস্তা নয়, অভিন্ন ১৫৮টা নদী রয়েছে, সেই নদীর পানি বন্টনের চুক্তি এখনও হয়নি। অথচ দেখা যাচ্ছে, সামরিক চুক্তি হচ্ছে, সীমান্তে মানুষ হত্যার বিষয় বাদ দিয়ে ট্রানজিট চুক্তি হচ্ছে এবং বিভিন্ন বন্দর নির্মাণ হচ্ছে। আমরা অবশ্যই যোগাযোগের পক্ষে। আমরা অবশ্যই একটি দেশের সঙ্গে আরেকটি দেশের সংযোগ হবে-তার পক্ষে। কিন্তু তার বিনিময়ে আমরা কি পাচ্ছি, সেটা জনগণের সামনে তুলে ধরতে হবে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. টিআইএম ফজলে রাব্বি চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সৈয়দ মেহেদী হাসান রুমী, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, বরকত উল্লাহ বুলু, শামসুজ্জামান দুদু, নিতাই রায় চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন