শেষ বিকালে স্বস্তি অস্ট্রেলিয়ার

0
161
Print Friendly, PDF & Email

ভারতের মাটিতে গত টানা ৭ টেস্টে হারের স্মৃতি অজিদের। আর এবারের চার ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথমদিনেও পরীক্ষা দিলেন অজি ব্যাটসম্যানরা। গতকাল দলীয় ২০৫ রানে নবম উইকেট খুইয়ে দিশাহারা দেখাচ্ছিল অজিদের। তবে শেষ বিকালে ব্যাট হাতে দৃঢ়তা দেখান মিচেল স্টার্ক-জশ হ্যাজেলউড। ইনিংসের দশম উইকেটে তারা গড়েন অবিচ্ছিন্ন ৫১ রানের জুটি। এতে কিছুটা স্বস্তি নিয়ে দিনের খেলা শেষ করে অস্ট্রেলিয়া। আট নম্বরে ব্যাট হাতে ৫৭ রানে অপরাজিত থাকেন মিচেল স্টার্ক। ৫৮ বলের মারকুটে ইনিংসে স্টার্ক হাঁকান পাঁচটি চার ও তিনটি ছক্কা। আর হার না মানা ইনিংসে ৩১ বলে ১ রান করেন অস্ট্রেলিয়ার ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান হ্যাজেলউড। এতে ৯৪ ওভারে ২৫৬/৯ সংগ্রহ নিয়ে ম্যাচের প্রথম দিনের খেলা শেষ করে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া। ক্যারিয়ারের ৩৫তম টেস্টে ১০০০ রান ও ১০০ উইকেটের ‘ডাবল’ পূর্ণ হলো স্টার্কের। টেস্টে এটি চতুর্থ দ্রুততম ‘ডাবল’। এমন শীর্ষ রেকর্ডে ভারতের ইরফান পাঠান ডাবল পূর্ণ করেন ২৯ টেস্টে। বাংলাদেশের মোহাম্মদ রফিক এমন কৃতিত্ব দেখান ৩৩ ম্যাচে। আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দল ভারতের বিপক্ষে পুনে মাঠে গতকাল টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ । ভারতের ২৫তম টেস্ট ভেন্যু হিসেবে অভিষেক হলো পুনের এমসিএ স্টেডিয়ামের। ব্যাট হাতে শুরুটা খারাপ ছিল না আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ের দ্বিতীয় শীর্ষ দল অস্ট্রেলিয়ার। ওপেনিংয়ে অর্ধশত রানের জুটি গড়েন  ডেভিড ওয়ার্নার ও ম্যাট রেনশ’। ক্যারিয়ারে যুগলবন্দি ৭ ইনিংসে চতুর্থবার অর্ধশত রানের জুটি গড়লেন তারা। তবে ভারতের মাটিতে ব্যাট হাতে টেস্টে আরো একবার মলিন দেখালো ওয়ার্নারকে। ব্যক্তিগত ৩৮ রানে ভারতীয় পেসার উমেশ যাদবের ডেলিভারিতে সরাসরি বোল্ড হয়ে যান ওয়ার্নার। ভারতের মাটিতে ৮ ইনিংসে ওয়ার্নারের রানের গড় ২৪.৩৭। ভিন দেশের মাটিতে তার দ্বিতীয় বাজে গড় এটি।
দিনের প্রথম সেশনে এক উইকেটে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর বোর্ডে জমা পড়ে ৮৪ রান। তবে দ্বিতীয় সেশনে ৬৯ রান তুলতে তিন উইকেট খোয়ায় সফরকারীরা। এ সময় একে একে সাজঘরে ফেরেন শন মার্শ,  পিটার হ্যান্ডসকম্ব ও অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। ব্যক্তিগত ২৭ রানে ভারতীয় অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে উইকেট খোয়ান অজি অধিনায়ক। যদিও ভারতের বিপক্ষে উজ্জ্বল পরিসংখ্যান তার। ক্যারিয়ারে ভারতের বিপক্ষে টেস্টের ১২ ইনিংসে স্মিথের রানের গড় ৯৩.০০। এতে তার রয়েছে চারটি সেঞ্চুরি ও তিনটি অর্ধশতক। গতকাল ১৯০/৫ নিয়ে পরের ১৫ রানে চার উইকেট খোয়ায় অস্ট্রেলিয়া। তবে শেষ উইকেট জুটিতে ব্যাট হাতে স্বাগতিক বোলারদের পীড়া দেন মিচেল স্টার্ক-জশ হ্যাজেলউড। দশম উইকেট জুটিতে তারা নির্বিঘ্নে ক্রিজে কাটিয়ে দেন ১২.১ ওভার। ভারতের বল হাতে ১২ ওবারের স্পেলে ৩২ রানে চার উইকেট নেন পেসার উমেশ যাদব। এটি তার টেস্ট ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় সেরা বোলিং ফিগার। তার সেরা বিলিংটাও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। ২০১২’র অস্ট্রেলিয়া সফরে পার্থ টেস্টের প্রথম ইনিংসে তার ফিগার ছিল ৫/৯৩। ভারতের মাটিতে টানা সপ্তম টেস্টে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে যেতে দেখা গেল অজিদের। যদিও আগের ছয়বারই হার দেখে অস্ট্রেলিয়া।
কম বয়সী হাফ সেঞ্চুরিয়ান রেনশ’
ভারতের মাটিতে অজিদের কম বয়সে হাফসেঞ্চুরির ৩৭ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙে দিলেন ম্যাট রেনশ’। গতকাল লড়াকু ইনিংসে ৬৮ রান করেন ২০ বছর ৩৩২ দিন বয়সী এ অজি ব্যাটসম্যান। ব্যক্তিগত ৩৬ রানে ইনজুরি নিয়ে সাজঘরে ফেরেন রেনশ’। পরে ক্রিজে ফিরে পূর্ণ করেন ব্যক্তিগত অর্ধশতক। ভারতের মাটিতে সবচেয়ে কম বয়সে হাফ সেঞ্চুরির রেকর্ডটি ছিল রিক ডার্লিংয়ের। ১৯৭৯-৮০ সফরে কানপুরে ডার্লিং এ রেকর্ড গড়েন ২২ বছর ১৫৪ দিন বয়সে।

শেয়ার করুন