রাণীনগরে বাড়ছে ভুট্টার চাষ, বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

0
274
Print Friendly, PDF & Email

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় দিন দিন বাড়ছে ভুট্টার চাষ। কম খরচ ও অল্প পরিশ্রমে অধিক লাভ হওয়ায় উপজেলার কৃষকদের নজর এখন ভুট্টা চাষের দিকে। এই মৌসুমে উপজেলায় চার শ ৬০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার আবাদ করা হচ্ছে যা অন্যান্য বছরের তুলনায় দ্বিগুণ। এই মৌসুমে কৃষকরা ভুট্টার উচ্চ ফলনশীল জাত হিসাবে ডন-১০১ জাতের ভুট্টা চাষ করেছেন। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ভুট্টার বাম্পার ফলনের আশা করছেন এলাকার ভুট্টা চাষিরা।
 
হরিশপুর গ্রামের কৃষক হাসেন সরদার জানান, মূল্য কম হওয়াই ধানের চাষ করে প্রতি বছরই তাদের লোকসান গুনতে হচ্ছে । গত বছরের বোরো ধান এখনো অনেক কৃষকের ঘরে মজুত রয়েছে। তাই বিকল্প পথ হিসাবে অন্যান্য ফসলের মধ্য তিনি ভুট্টা চাষের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।
 
মিরাট গ্রামের কৃষক রহিম উদ্দিন জানান, এ মৌসুমে ধান চাষের উপযুক্ত ১০ বিঘা জমিতে তিনি ভুট্টার আবাদ করছেন। নিজেদের চাহিদা পূরণ করে বিভিন্ন বাজারে অধিক লাভে বিক্রয় করা হয়। ভুট্টার ফসল থেকে উর্পাজিত আয় পরবর্তীতে ধান উৎপাদনে সহায়তা পাবেন বলে তিনি দাবি করেন।
 
আতাইকুলা গ্রামের কৃষক কালাম জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে ভুট্টার আবাদ করে আসছেন। ভুট্টার ফলন অধিক হওয়ায় এখন অনেকেই ভুট্টার চাষের দিকে ঝুঁকছেন। এছাড়াও ভুট্টা উৎপাদনে সার কম প্রয়োগ করতে হয়। পাশাপাশি সেচ, কীটনাশক ও নিড়ানীর প্রয়োজন হয় না। খরচ কম ও স্বল্প সময়ে এ ফসল হয়ে থাকে।
 
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এস.এম.গোলাম সারোয়ার জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলায় রেকর্ড পরিমাণ জমিতে ভুট্টার চাষ হচ্ছে। সম্প্রতি বয়ে যাওয়া বন্যার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কৃষকরা ভুট্টা চাষের প্রতি ঝুঁকে পড়েছেন। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে প্রতি হেক্টরে প্রায়আট টন ভুট্টার ফলনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন