মেহেরপুরে যুবদল নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

0
346
Print Friendly, PDF & Email

মেহেরপুরের গাংনী পৌরসভায় ‘চাঁদা না দেওয়ায়’ এক যুবদল নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

রোববার রাতে কুপিয়ে আহত করার পর সোমবার ভোরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় বলে জানান গাংনী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন।

নিহত আবুল খায়ের (৩৫) গাংনী পৌর যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক ও ইটভাটা ব্যবসায়ী ছিলেন।

খায়েরের বড় ভাই গাংনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র ইনসারুল হক ইনসু বলেন, রোববার রাত ৯টার দিকে ইটভাটা থেকে মোটরসাইকেলে করে থানাপাড়ায় নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন খায়ের।

“এ সময় বাড়ির কাছেই তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে চলে যায় পৌরসভার ওলিপাড়ার বাবু ওরফে কানা বাবু, আকছার হোসেন, তার ছেলে রিপন হোসেন, আব্দুস সোবহানসহ ছয়-সাতজন। তারা তার মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করে।”

আবুল খায়েরকে প্রথমে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই তাকে রাজশাহী নেওয়া হয়। সেখানে সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয় বলে ইনসু জানান।

তিনি অভিযোগ করেন, হত্যাকারীরা আবুল খায়েরের ইটভাটায় চাঁদা দাবি করেছিল। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এরই জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

ওসি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, খায়েরের সঙ্গে হামলাকারীদের চাঁদাসংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধ ছিল। থানায় এ বিষয়ে এখনও কোনো অভিযোগ না এলেও হামলার সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহভাজনদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু হয়েছে।

শেয়ার করুন