কৃষকের ‘বন্ধু’ সোলার সেচ পাম্প

0
267
Print Friendly, PDF & Email

সোলার সেচ পাম্প ব্যবহারের মাধ্যমে ভাগ্য পরিবর্তনের স্বপ্ন দেখছেন উত্তরের কৃষক। তারা বলছেন, উৎপাদন খরচ কমার পাশাপাশি নিরবচ্ছিন্ন পানির নিশ্চয়তা থাকায় ঝুঁকি কমেছে বোরো আবাদে।

এই ব্যবস্থাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরাও। তবে কর্পোরেট বাণিজ্যের কাছে যেন চাষীরা বন্দি হয়ে না পড়েন, সে বিষয়ে সরকারকে উদ্যোগ নেয়ার তাগিদ তাদের।

উত্তরের কৃষির বড় অংশ জুড়ে বোরো চাষ। যার পূরটাই সেচ নির্ভর।

বিদ্যুতের লোডশেডিংসহ জ্বালানী তেলের দাম বৃদ্ধির কারনে এই চাষে কৃষকের বড় অংশ ব্যয় হয় কেবল সেচে। তবে, সাম্প্রতিক সময়ে খরচ কমেছে সোলার ইরিগেশন পাম্পের ব্যবহারে।

কৃষকরা বলছেন এর মাধ্যমে নিরবচ্ছিন্ন পানির নিশ্চয়তা থাকায় ঝুঁকি কমেছে বোরো আবাদে। তবে প্রতিবছর সার, কিটনাশক ও মজুরী ব্যয় বাড়লেও ধানের ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত তারা।

এমন ব্যবস্থাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞ।

চলতি অর্থ বছরে রংপুরে অঞ্চলে বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে ৫ লাখ ৩ হাজার হেক্টর।

শেয়ার করুন