মেসি-নেইমার ঝলকে বার্সার দুর্দান্ত জয়

0
165
Print Friendly, PDF & Email

লিওনেল মেসি ও নেইমারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে রোমার বিপক্ষে ৩-০ গোলের অসাধারণ জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। প্রাক-মৌসুমে ঘরের মাঠে ন্যূ-ক্যাম্পে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৫০তম ট্রোফেও জন গাম্পার কাপে খেলতে নামে বার্সা। আর দলের হয়ে নেইমার, মেসি ও ইভান রাকিটিচ একটি করে গোল করেন।

বার্সার নতুন অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা এদিন প্রথমে সাইড বেঞ্চে বসে থাকায় দলের নেতৃত্ব দেন আর্জেন্টাইন তারকা মেসি। আর তার নেতৃত্বে ম্যাচে দারুণ কতৃত্ব বজায় রাখে কাতালান দলটি।

একের পর এক আক্রমণে ব্যস্ত থাকা স্পেন চ্যাম্পিয়নরা ম্যাচের ২৬ মিনিটে লিড নেয়। মেসির লম্বা ক্রসে নেইমারের দিকে বল বাড়িয়ে দেন জার্মিই ম্যাথিউ। আর সেই বাড়ানো বল থেকে গোল করতে ভুল করেন নি ব্রাজিলিয়ান অধিনায়ক(১-০)।

এদিকে খেলার ৩৪ মিনিটে ঘটে এক অনাকাঙ্খিত ঘটনা। মেজাজ হারিয়ে ফেলেন শান্ত মনের ফুটবলার মেসি। রোমার ডি বক্সের কাছে প্রতিপক্ষ ফুটবলার ইয়াঙ্গা-এমবিওয়ার সঙ্গে বিবাদে জড়ান চারবারের বিশ্ব সেরা এ তারকা। এক পর্যায়ে দু’জন মাথা দিয়ে পরস্পরের সঙ্গে ধাক্কা-ধাক্কি করেন। প্রীতি ম্যাচ তাই রেফারি লাল কার্ড না দিয়ে দু’জনকে হলুদ কার্ড দেখান।

বিবাদে জড়ালেও মাঠের খেলা থেকে একটুও মনোযোগ হারান নি মেসি। খেলার প্রথমার্ধের নির্ধারিত সমেয়র চার মিনিট আগে আবারো আনন্দে ভাসে বার্সা শিবির। আর এ আনন্দের মূল উৎস সেই মেসি। লুইস সুয়ারেজ ও দানি আলভেজের ছোট ছোট পাসে বল পান নেইমার। আর সেই সুযোগে মেসির কাছে বল পাস করে দেন তিনি। কর্ণার থেকে করা শটে বার্সার লিড দ্বিগুন করেন মেসি। পরে ২-০ গোলের লিড নিয়েই বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

প্রীতি ম্যাচ তাই দলের প্রত্যোক ফুটবলারদের এসব খেলায় সুযোগ দেওয়া হয়। আর বিরতির পর ম্যাচের ৬০ মিনিটে মেসি, নেইমার, সুয়ারেজ ও জাভিয়ার মাশ্চেরানো মাঠ থেকে উঠে যান। তাদের পরিবর্তে মাঠে আসেন ইনিয়েস্তা, সান্দ্রো রামিরেজ, মুনির আল হাদাদ্দি ও সার্জিও বুস্কেটস।

বার্সার মূল গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টার স্টেগেন সহ আরো প্রায় প্রত্যোক ফুটবলার বদল হলেও খেলায় একটুও ছন্দ পতন হয়নি। উল্টো ম্যাচের ৬৬ মিনিটে লিড আরো বাড়ায় ট্রেবল জয়ীরা। বুস্কেটসের অ্যাসিস্টে গোল করেন ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার রাকিটিচ।

খেলার বাকি সময় আর কোন গোল না হলে শেষ পর্যন্ত ৩-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লুইস এনরিকের শিষ্যরা।

শেয়ার করুন