খুলনায় নির্যাতনে শিশু হত্যার ঘটনায় আটক ৩, শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ

0
566
Print Friendly, PDF & Email

খুলনায় নির্মমভাবে ১৪ বছরের এক শিশুকে হত্যা করেছে গ্যারেজ মালিক। এই ঘটনায় গ্যারেজ মালিকসহ ৩ জনকে গণপিঠুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনগণ।

সোমবার রাত ১০টার দিকে নগরীর টুটপাড়া সেন্ট্রাল রোডে এই ঘটনা ঘটে।

খুলনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রাকিব নামে ১৪ বছরের এক কিশোর মিন্টুর মটর গ্যারেজে কাজ করত। হঠাৎ সে কাজ ছেড়ে অন্য গ্যারেজে কাজ নেয়। এই ঘটনার পর সোমবার রাত ১০টার দিকে রাকিব তার পুরাতন কর্মস্থলের সামনে দিয়ে যাচ্ছিল।

এই সময় গ্যারেজ মালিক মিন্টু ‘চাকরি ছেড়ে দেওয়ার অপরাধে’ রাকিবকে আটক করে। এবং মটর টায়ারের পাম্প দেওয়া মেশিনের পাইপ রাকিবের মলদারে ঢুকিয়ে হাওয়া দেয়। হাওয়া ঢুকে রাকিবের পেট ফুলে গেলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই সময় ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও আশপাশের মানুষ গ্যারেজ মালিক মিন্টু তার ভাই শরীফকে গণপিটনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মিন্টুর মা বিউটি বেগমকেও পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

সোমবার রাত ২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশু রাকিবের মৃত্যু হয়। পুলিশ নিহত রাকিবের বয়স ১৪ বছর বলেছে, তবে পরিবার থেকে রাকিবের বয়স ১২ বছর বলে জানানো হয়। গণপিঠুনিতে আহত মিন্টু ও শরীফকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন সেলে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে গ্যারেজ মালিকসহ জড়িতদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করছে এলাকাবাসী।

এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও ওসি জানান।

শেয়ার করুন