বাবা/ মায়ের পরকীয়ায় সন্তানের ওপর যে ভয়ানক প্রভাবগুলো পড়ে –

0
247
Print Friendly, PDF & Email

আমাদের সমাজের অবৈধ সম্পর্কগুলোর মধ্যে পরকীয়া সব চাইতে বেশি ক্ষতিকর একটি সম্পর্ক। বিয়ের পরে স্বামী বা স্ত্রীর অন্য কোনো নারী বা পুরুষের সাথে যে প্রেমের অবৈধ সম্পর্ক গড়ে ওঠে সেটিই আমরা পরকীয়ার সম্পর্ক হিসেবে জানি। একটি সাজানো গোছানো সুন্দর পরিবারে মারাত্মক বিষের মত কাজ করে পরকীয়ার অবৈধ সম্পর্ক। পরকীয়ার সম্পর্ক অনেক কারণেই গড়ে উঠতে পারে। কিন্তু পরকীয়ার সম্পর্কে জড়িয়ে অনেকেই ভুলে যান নিজের সন্তানের কথা।
বাবা/ মায়ের পরকীয়ায় সন্তানের ওপর যে ভয়ানক প্রভাবগুলো পড়ে

বাবা/মায়ের এই অবৈধ সম্পর্ক কী ধরণের প্রভাব ফেলতে পারে সন্তানের ওপর তা বিন্দুমাত্র ভেবে দেখেন না কোনো বাবা-মা। বাবা/মায়ের এই অবৈধ সম্পর্কের প্রভাব একেক বয়সের সন্তানের ওপর একেক ভাবে পড়ে। আসলেই একবার চিন্তা করে দেখুন তো, সেই কিশোর/কিশোরীটির মানসিক অবস্থার কথা যে কিনা এই ধরণের পরিস্থিতির শিকার। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক বাবা/ মায়ের পরকীয়ার সম্পর্কের জন্য সন্তানের ওপর কী ধরণের মারাত্মক প্রভাব পড়তে পারে।

নৈতিক মনোভাবের অধঃপতন
প্রতিটি অভিভাবকই চান নিজের ছেলেমেয়েদের নৈতিক আদর্শে মানুষ করতে। এর জন্য সত্য মিথ্যা কিংবা ভাল মন্দ জ্ঞান হওয়ার পর থেকে তাদের শিক্ষা দেয়া হয় ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠার। এর মাঝে হঠাৎ করে সন্তানটি যখন নিজের অভিভাবকের মধ্যে এই ধরণের অবৈধ কিছু দেখতে পায় তখন স্বাভাবিক ভাবেই সন্তানের সাধারণ চিন্তা ভবনার মধ্যে অনেক বড় একটি পার্থক্য আসে। বাবা/মায়ের মতই নৈতিক অবক্ষয় ঘটে তার মধ্যে। এবং নিজের ভেতরে সে একটি অসুস্থ মানসিকতা নিয়ে বড় হতে পারে। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় বাবা/মায়ের পরকীয়ার প্রভাবের কারণে সে নিজেও বড় হয়ে একই কাজ করতে উদ্যত হয়। আদর্শে বড় হওয়া শিশুটি সরে আসে আদর্শ জীবন থেকে।

অল্প বয়স থেকেই মানসিক চাপের মধ্যে বড় হওয়া
পরকীয়া কিংবা অবৈধ সম্পর্ক বোঝার মতো বয়সী সন্তানদের সমস্যা হয় সব চাইতে বেশি। সে সব সময় ভালো এবং মন্দের দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগে মানসিক চাপের মধ্যে পড়ে। এবং ছোট বেলা থেকেই এই ধরণের মানসিক চাপের মধ্যে বড় হয়ে সে নিজের সত্ত্বাকে পর্যন্ত হারিয়ে ফেলে।

বিয়ে এবং ভালোবাসা বিষয়ে বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি
বাবা/মায়ের পরকীয়ার কারণে আর একটি যে মারাত্মক প্রভাব পড়ে সন্তানের ওপর তা হচ্ছে বিয়ে এবং প্রেম-ভালোবাসার প্রতি বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি হওয়া। এই ধরণের অবৈধ কর্মকাণ্ডের সাক্ষী শিশুটি বড় হয়েও কোনোভাবে মানতে পারে না যে সুস্থ, স্বাভাবিক এবং সুন্দরভাবে একটি বৈবাহিক সম্পর্ক স্থাপন সম্ভব। এই পরিস্থিতির শিকার সন্তানেরা সব সময় ভাবেন তার জীবনেও এই ধরণের ঘটনা ঘটতে পারে।

বাবা/মায়ের প্রতি অশ্রদ্ধা
পরকীয়া কি জিনিস তা হয়তো অনেক সন্তানই বোঝে না। কিন্তু পাড়া প্রতিবেশীর কটু কথা এবং আচরণে অনেকের মনে এই অবৈধ জিনিসটি নিয়ে প্রশ্নের সৃষ্টি হয়। এই প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার পর সন্তানের মনে বাবা/মায়ের এই কর্মকাণ্ডের কারণে অশ্রদ্ধার সৃষ্টি হয়। এবং সারাটা জীবন ধরে তারা এই অশ্রদ্ধা মনের মাঝে লালন করে।

আত্মবিশ্বাসবিহীন মানুষ হিসেবে বড় হওয়া
আমাদের সমাজের মানুষ পরকীয়ার মতো একটি ঘটনাকে যতো বেশি রসালো করে উপস্থাপন করা যায় সেই কাজে বেশ পারদর্শী। বাবা/মায়ের পরকীয়ার কারণে অনেক সময় সন্তানকে আসে পাশের মানুষের তীব্র কটু বাক্যের মুখে পরতে হয়। এতে করে সে দিনে দিনে নিজের আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলে। এবং হয়ে উঠে সমাজভীতি নিয়ে।
f

শেয়ার করুন