সুপ্রিম কোর্টের নিরাপত্তায় নতুন ব্যাটালিয়নের প্রস্তাব

0
103
Print Friendly, PDF & Email

সুপ্রিমকোর্ট এলাকার নিরাপত্তায় নতুন একটি ব্যাটালিয়ন গঠনের প্রস্তাব দিয়েছে পুলিশ অধিদফতর। একজন পুলিশ সুপার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে ব্যাটালিয়ন গঠনের এ প্রস্তাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবেচনায় রয়েছে।
 
বর্তমানে সুপ্রিম কোর্ট ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের নিরাপত্তায় দুই শতাধিক পুলিশ দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। রমনা বিভাগের পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা নিরাপত্তার বিষয়টি দেখভাল করছেন। প্রটেকশন পুলিশের একজন সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) আছেন এর নেতৃত্বে।
 
এমন পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্টের জন্য আলাদা একটি ব্যাটালিয়ন হলে বিচারক,আইনজীবীসহ বিচার কাজে সম্পৃক্তদের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আরো সহজ হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
 
এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (পুলিশ) আখতার হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘পুলিশের তরফ থেকে একটি প্রস্তাবনা এসেছে। বিষয়টি পর্যালোচনা যাছাই বাছাই করে দেখা হচ্ছে। এরপর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’
 
নতুন ব্যাটালিয়নটি আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) আদলে গঠন করা হবে। এর নেতৃত্বে থাকবেন একজন পুলিশ সুপার (এসপি) মর্যাদার কর্মকর্তা। তার অধীনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার,সহকারী পুলিশ সুপারসহ এক হাজার পুলিশ সদস্য থাকবেন।
 
গত ১১ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের বর্ধিত (এনেক্স) ভবনের দ্বিতীয় তলায় দুটি আদালত কক্ষ থেকে বোমা ও বোমা সদৃশ্য বস্তু উদ্ধার করা হয়।
 
ওই দিনই আইনজীবী সমিতি ভবনের টয়লেট থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় গুলিভর্তি একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। এতে দেশের সর্বোচ্চ আদালত অঙ্গণের নিরাপত্তার বিষয়ে প্রশ্ন উঠে। এর পরপর আদালত এলাকায় বাড়তি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।
 
এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১২ জানুয়ারির এক বৈঠকে নিরাপত্তা বিষয়ে বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেয় আইনজীবী সমিতি। আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনকে প্রধান করে সাত সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়।
 
এছাড়া সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য চিঠি পাঠানো হয় পুলিশের কাছে। এরপর পুলিশের তরফ থেকে নতুন একটি ব্যাটালিয়ন গঠন করে সুপ্রিম কোর্টের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য কয়েক দিন আগে প্রস্তাবটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

শেয়ার করুন