বিজিবিকে আধুনিক ও শক্তিশালী বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হবে : প্রধানমন্ত্রী

0
50
Print Friendly, PDF & Email

বিজিবিকে আধুনিক ও শক্তিশালী বাহিনীতে পরিণত করতে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (২০ ডিসেম্বর) সকালে পিলখানায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) দিবস উপলক্ষে আয়োজিত কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, বিজিবির সুনাম পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিজিবি জওয়ানদের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বলেন, এই বাহিনীর সুনাম পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সীমান্ত রক্ষাসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতায় আপনারা সাহসী ভূমিকা পালন করছেন। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, পিলখানায় হত্যাকাণ্ড একটি কালো অধ্যায়। বিদ্রোহের নামে হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছিল। আমরা ৫৭ জনকে অফিসারকে হারিয়েছি। যাদের হারিয়েছি তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাই। পিলখানা হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আপনাদের সহযোগিতায় ওই অবস্থা কাটিয়ে উঠেছি, বিচার করেছি। বিজিবি জওয়ানদের প্রশংসা করে তিনি আরো বলেন, সীমান্ত রক্ষায় সাম্প্রতিক সময়ে অনেক সাফল্য দেখিয়েছেন। সীমান্তে হত্যাকাণ্ড কমে এসেছে। কাউকে ধরে নিয়ে গেলে বিএসএফ’র সঙ্গে আলোচনা করে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। বিজিবি জওয়ানদের প্রশিক্ষণে সীমান্ত রক্ষা, নৈতিকতার মতো বিষয়কে গুরুত্ব দেওয়া হয় বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি সুখী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে চেয়েছিলেন। সে লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করা হবে। বিজিবি হাসপাতালে জওয়ানদের পাশাপাশি তাদের মা-বাবার চিকিৎসাসেবার সুযোগও রাখা হয়েছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে বিজিবি বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। দিবসের কর্মসূচি অনুযায়ী বাদ ফজর পিলখানায় বিজিবি সদর দফতরসহ বাহিনীর সব ইউনিট মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন