যাত্রা করলো সর্বনিম্ন ভাড়ার ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স

0
73
Print Friendly, PDF & Email

অভ্যন্তরীণ রুটে সর্বনিম্ন বিমান ভাড়া নিয়ে যাত্রা শুরু করলো ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। বুধবার সকালে হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে আনুষ্ঠানিকভাবে এয়ারলাইন্সের উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

শুরুতে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে প্রতিদিন দুটি ফ্লাইট, ঢাকা-যশোর রুটে একটি দিয়ে যাত্রা শুরু করেছে ইউএস-বাংলা। বুধবার সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট শুরু হয়।

আগামী আগস্ট থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে চারটি এবং ঢাকা-যশোর রুটে দুটি করে ফ্লাইট চলাচল করবে।

এছাড়া ওই সময়ে ঢাকা-সিলেট এবং ঢাকা-কক্সবাজার রুটে একটি করে ফ্লাইট চালু করবে ইউএস বাংলা।

একে একে দেশের অন্যান্য অভ্যন্তরীণ রুটগুলোতেও ফ্লাইট চালু করবে ইউএস বাংলা।

ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ জানায়, তাদের মালিকানাধীন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স বহরে দুটি ড্যাশ ৮ কিউ-৪০০ উড়োজাহাজ রয়েছে।

উদ্বোধন উপলক্ষে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে সাড়ে ৩ হাজার টাকা এবং ঢাকা-যশোর রুটে ৩ হাজার টাকা।

আগামী ৬ মাসের মধ্যে একই মডেলের তৃতীয় উড়োজাহাজ ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সকে সময়ানুবর্তীতা অনুসরণ করার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, অনেক আশা নিয়ে তরুণ-তরুণীরা এই পেশায় আসছে। দুই বছর পর এয়ারলাইন্সে যেন এমন কিছু না হয় যাতে তাদের স্বপ্ন ভেঙে যায়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন সচিব খুরশিদ আলম চৌধুরী ও বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মাহমুদ হোসেন।

ইউএস-বাংলার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমরাই প্রথম ৭৬ আসনের ড্যাশ উড়োজাহাজ এনেছি। এর মধ্যে ৬টি বিজনেস ক্লাসের আসনও থাকবে। দেশে এর আগে অন্য অপারেটরেরা ড্যাশ ৮ কিউ ৩০০ এর পুরাতন মডেল ব্যবহার করছেন।

তিনি বলেন, ইউএস বাংলার উড়োজাহাজটির দুটি দরজা, কার্গো স্পেস বেশি। পুরাতন মডেলের উড়োজাহাজটিতে আসন সংখ্যা ৪৯টি, ব্লেড সংখ্যা ৫টি আর কিউ-৪০০ এর ৬টি। ব্লেড সংখ্যা বেশি হওয়ায় এটি খুব দ্রুত বেশি উচ্চতায় উঠে যেতে পারে। এর ফলে যাত্রীরা দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় কম ঝাকি অনুভব করবেন।

আবদুল্লাহ মামুন বলেন, উড়োজাহাজগুলোতে এপিইউ (অক্সুলারি পাওয়ার ইউনিট) থাকায় বাইরের অধিক তাপমাত্রায়ও উড়োজাহাজের কেবিন শীতল থাকবে। নয়েজ এবং ভাইব্রেশন সার্পেশন সিস্টেম থাকার কারণে যাত্রীরা কেবিনে কম শব্দ অনুভব করবেন।

যাত্রীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে এয়ারলাইন্সটি যশোর থেকে খুলনার যাত্রীদের জন্য আধুনিক ৪২টি আসনের বাস সার্ভিসের ব্যবস্থা করেছে। এতে ওয়াইফাই সুবিধা রয়েছে।

এছাড়া চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড় এবং আগ্রাবাদ থেকে শাহ আমানত বিমানবন্দরেও যাত্রীদের পরিবহনের জন্য বাস সার্ভিস থাকবে বলেও জানান ইউএস বাংলার আবদুল্লাহ আল মামুন।

শেয়ার করুন