ঢাকা-বরিশাল লঞ্চের টিকিট ২০ জুলাই থেকে

0
44
Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা-বরিশাল নৌপথে লঞ্চের অগ্রিম টিকিট দেওয়া শুরু হবে ২০ জুলাই থেকে। বেসরকারি লঞ্চ মালিকেরা ২৪ জুলাই থেকে স্পেশাল সার্ভিস চালু করবেন।

ইতিমধ্যে অগ্রিম টিকিটের জন্য স্লিপ নেওয়া শেষ করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে অগ্রিম টিকিটের সুবিধা পাচ্ছেন না সাধারণ যাত্রীরা। সরকারি যাত্রী পরিবহন সংস্থা বিআইডব্লিউটিসি আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত স্পেশাল সার্ভিসের সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি।

সাধারণ যাত্রীদের অভিযোগ, লঞ্চের অগ্রিম টিকিট দেওয়ার ঘোষণা হলেও ওই টিকিট সাধারণ যাত্রীরা পায় না। আগে থেকে নিজস্ব ও পরিচিতদের নামে বরাদ্দ দিয়ে রাখে লঞ্চ কর্তৃপক্ষ। সেখান থেকে কালোবাজারে চলে যায় টিকিট।

লঞ্চযাত্রী মো. আবুল বাসার জানান, তিনি ২৬ ও ২৭ জুলাইয়ের টিকিট নেওয়ার জন্য লঞ্চের বুকিং অফিসে ঘুরেছেন; কিন্তু পাননি। টিকিট নেই, অগ্রিম দেওয়া শুরু হয়নি—এমন সব তথ্য দিয়ে ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। একই অভিযোগ করেন মো. জাকির হোসেন, নূরুল ইসলাম, শোয়েব রহমানসহ অনেকে।

বিলাসবহুল সুরভী লঞ্চের মালিকদের একজন মো. রিয়াজ-উল কবির প্রথম আলোকে বলেন, লঞ্চের অগ্রিম টিকিটের জন্য স্লিপ নেওয়া হয়েছে। স্লিপ নেওয়া টিকিট ২০ জুলাই থেকে দেওয়া শুরু হবে। এর বাইরে টিকিট দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।
কীর্তনখোলা লঞ্চের সুপারভাইজার মো. শমসের হোসেন বলেন, তাঁদের লঞ্চের অগ্রিম টিকিট মালিক পক্ষ দিয়েছে।

সুন্দরবন লঞ্চের কাউন্টার থেকে দেবাশীষ জানান, আগে থেকেই স্লিপ নেওয়া শুরু হয়েছে। স্লিপের বাইরে ঈদের অগ্রিম টিকিট দেওয়ার সুযোগ নেই।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) বরিশাল কার্যালয়ের নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের উপপরিচালক আবুল বাসার মজুমদার বলেন, ঈদ উপলক্ষে যাত্রীদের নিরাপত্তা দিতে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ঈদ উপলক্ষে ২৪ জুলাই থেকে ৩ আগস্ট পর্যন্ত ঢাকা-বরিশাল নৌপথে স্পেশাল সার্ভিস চালু থাকবে। এ সময় প্রতিদিন সরাসরি ১২টি বিলাসবহুল লঞ্চ ঢাকা-বরিশাল রুটে চলাচল করবে। এর বাইরে ভায়া চলাচল করবে আরও ছয়টি। লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রীবোঝাই করতে দেওয়া হবে না। এ ছাড়া যাত্রীদের নিরাপত্তায় নৌবন্দরে নিয়ন্ত্রণকক্ষ চালু থাকবে। অতিরিক্ত পুলিশ, র্যাব, কোস্ট গার্ড দায়িত্ব পালন করবে। এর সঙ্গে থাকবেন স্কাউট ও গার্ল গাইডের সদস্যরা।

সুন্দরবন লঞ্চের মালিক বরিশাল শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি সাইদুর রহমান জানান, সাধারণ সময় ছয়টি লঞ্চ চললেও ঈদে যাত্রী চাপ সামাল দিতে ১৩টি লঞ্চ দিনে দুবার ট্রিপ দেবে। ২৪ জুলাই থেকে ওই সার্ভিস চালু থাকবে।

বিআইডব্লিউটিসি বরিশালের সহকারী ব্যবস্থাপক গোপাল কৃষ্ণ মজুমদার জানান, স্পেশাল সার্ভিস দেওয়ার জন্য এখনো কর্মসূচি দেওয়া হয়নি। সম্ভবত ঈদের এক সপ্তাহ আগে সার্ভিস চালু হবে।

শেয়ার করুন