সাগর-রুনি হত্যা তানভীরের জামিন আবেদন ড. মিজানের

0
34
Print Friendly, PDF & Email

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি তানভীরের জামিন আবেদন নিয়ে সুপ্রিমকোর্টে আসেন মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান।

সে সময় তানভীরকে আটক রাখার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের পক্ষ থেকে একটি রিট আবেদন করা হয়।

পাশাপাশি তানভীরের জামিনের জন্য একটি আবেদনও করে মানবাধিকার কমিশন।

আজ রোববার বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মুহাম্মাদ খুরশীদ আলম সরকারের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে জামিনের এ আবেদনটি করেন ড. মিজানুর।

তানভীরের পক্ষে আবেদনটি আদালতে উপস্থাপন করেন নারী মানবাধিকার কর্মী অ্যাডভোকেট ফাওজিয়া করিম ফিরোজ।

তিনি আদালতে বলেন, ‘মাই লর্ড, কোনো অভিযোগ ছাড়াই এতদিন ধরে একটা লোককে আটক রাখা ঠিক নয়।’

পরে আদালত আবেদনটি স্টান্ড ওভার করে রেখে দেন। অর্থাৎ আবেদনটি আবার অন্য আদালতে শুনানি করা যাবে।

আদালত থেকে বেরিয়ে অ্যাডভোটেক ফাওজিয়া করিম বাংলামেইলকে বলেন, ‘তানভীরকে দীর্ঘ ২১ মাস ধরে কোনো অভিযোগ ছাড়েই আটক করে রাখা হয়েছে। একটা মানুষকে কোনো অভিযোগ ছাড়া এতদিন আটক করে রাখা ঠিক নয়।’

এর আগে তানভীরের পক্ষ থেকে চারবার জামিন আবেদন করা হলেও জামিন মঞ্জুর করেননি আদালত।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারে নিজেদের বাসায় খুন হন মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সরওয়ার এবং এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনি।

শেয়ার করুন