টেস্ট–ওয়ানডে ছাড়ার হুমকি সাকিবের

0
61
Print Friendly, PDF & Email

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএলে) খেলতে না দিলে বাংলাদেশ দলের হয়ে ওয়ানডে, টেস্ট খেলবেন না—কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহেকে নাকি টেলিফোনে এমন হুমকিই দিয়েছেন সাকিব আল হাসান! অস্ট্রেলিয়া থেকে কোচ এটি ই-মেইলে জানিয়েছেন বিসিবিকে।
বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান সেই ই-মেইলের প্রাপ্তি স্বীকার করে কাল বললেন, ‘এ রকম একটি চিঠি আমি দেখেছি। ঠিক বুঝতে পারছি না, কী করে ও (সাকিব) এ কথা বলতে পারে! আমি তাদের সঙ্গে সামনাসামনি বসে বিষয়টা জানতে চাইব।’ কাল সন্ধ্যায় টেলিফোনের অন্য প্রান্তে বিসিবির সভাপতিকে বেশ কঠোরই মনে হলো, ‘এটা যদি সত্যি হয়, কাউকেই ছাড়া হবে না। শৃঙ্খলার প্রশ্নে কোনো আপস নয়।’
এর আগে গত বুধবার বিসিবির অনাপত্তিপত্র না নিয়েই সিপিএল খেলতে সস্ত্রীক দেশ ছাড়েন সাকিব। লন্ডনে দুদিন থেকে বারবাডোজে যাওয়ার কথা তাঁর। কিন্তু এর আগেই বিসিবি ই-মেইলে সাকিবকে জানিয়ে দেয়, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দেশে ফিরে যেন জাতীয় দলের অনুশীলনে যোগ দেন। তবে জানা গেছে, তাৎক্ষণিকভাবে অনাপত্তিপত্র না পেলেও যাওয়ার আগে সাকিব বিসিবির কাছে আবেদন করে ক্রিকেট পরিচালনা প্রধান আকরাম খানের মৌখিক অনুমতি নিয়েছেন।
লন্ডনের বিমানে ওঠার আগে ছুটিতে অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়া কোচ হাথুরুসিংহের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলেন সাকিব। কোচ তাঁকে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে সিপিএল থেকে ফিরে দেশে ১ আগস্ট জাতীয় দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের অনুশীলনে যোগ দিতে বলেন। কিন্তু সাকিব পুরো সিপিএল খেলে একবারে ওয়েস্ট ইন্ডিজেই জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। এ নিয়ে কোচের সঙ্গে নাকি উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ও হয় সাকিবের। সেটারই একপর্যায়ে তিনি হাথুরুসিংহেকে বলেন, দরকার হলে টেস্ট-ওয়ানডে থেকে অবসর নিয়ে ফেলবেন। বাংলাদেশের প্রধানতম ক্রিকেটারের এমন কথায় হতভম্ব হয়ে যান কোচ এবং সেটা ই-মেইলে জানান বিসিবিকে।
ওদিকে বিসিবি সাকিবকে অনাপত্তিপত্র না দেওয়ায় উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড (ডব্লিউআইসিবি)। এবারের আইপিএলের বড় তারকা সাকিব। তাঁর অনুপস্থিতিতে সিপিএল যে অনেকটাই জৌলুশ হারাবে! ডব্লিউআইসিবির সভাপতি কাল বিসিবির সভাপতির সঙ্গে প্রথমে টেলিফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেন। না পেয়ে ই-মেইলে সাকিবকে অনাপত্তিপত্র দেওয়ার অনুরোধ জানান। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোর্ড সভাপতির অনুরোধ সত্ত্বেও সাকিবকে সিপিএলে খেলার অনাপত্তিপত্র দেওয়ার আশ্বাসবাণী শোনাচ্ছেন না নাজমুল হাসান, ‘এনওসি (অনাপত্তিপত্র) দেওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। ও শৃঙ্খলা ভেঙেছে। এ ব্যাপারে আমরা খুবই কঠোর। ৭ জুলাইয়ের বোর্ডসভাতেই এনওসি দেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে।’
অবশ্য সাকিবের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, ঘটনা এত দূর গড়িয়ে যাওয়ায় সিপিএলে খেলতে তিনি নিজেই আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন। আজ-কালের মধ্যে দেশে ফিরে কাল বিকেলেই জাতীয় দলের অনুশীলনে যোগ দেওয়ার কথা সাকিবের।
সেটা হয়তো দেবেন, কিন্তু তাঁকে নিয়ে সর্বশেষ এই বিতর্ক ক্রিকেটারদের শৃঙ্খলার ব্যাপারে আরও কঠোর করে তুলছে বিসিবিকে। যার আরেকটা উদাহরণ দেখা যেতে পারে দ্রুতই। নাজমুল হাসানই বলছিলেন, ‘এখন থেকে কোনো খেলোয়াড় বিসিবির অনুমতি ছাড়া কোনো পণ্যের বিজ্ঞাপনে অংশ নিতে পারবে না। ৭ তারিখেই এ ব্যাপারে চিঠি ইস্যু করব।’

শেয়ার করুন