নাটোরে আ’লীগ কর্মীর পায়ের রগ কেটেছে যুবলীগ॥ আটক ৫

0
137
Print Friendly, PDF & Email

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার মোমিনপুর গ্রামে খাস জমির দখল নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে এক আওয়ামী লীগ কর্মীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে যুবলীগ কর্মীরা। আহতের নাম মুনছুর রহমান হেবল (৪৫)। শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ ধারালো অস্ত্রসহ পাঁচ যুবলীগ কর্মীকে আটক করেছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মোমিনপুর গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে মিজানের নেতৃত্বে ১০-১২ জন যুবলীগ কর্মী রাতে হেবলকে বাড়ি থেকে ডেকে পাশের রাস্তায় নিয়ে যায়। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে হেবলকে কুপিয়ে পায়ের রগ কেটে দেয় তারা। এক পর্যায়ে হেবল জ্ঞান হারিয়ে ফেললে মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নাটোর সদর হাসপাতালে এবং পরে অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।
এদিকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে তাকে রাজশাহী নেয়ার পথে তিনটি শ্যালো চালিত ভটভটি নিয়ে হামলাকারীরা আবার তার পিছু নেয়। খবর পেয়ে পুলিশ এ সময় হামলাকারীদের মধ্যে যুবলীগ কর্মী মিজান (২৭), উজ্জল (২৮), ফারুক (২০), জাহিদুর (২৫) ও শিমুলকে (২৩) আটক করে।
এ সময় আটককৃতদের কাছ থেকে চাপাতি, ছোরা, লোহার রড় ও লাঠি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় ভটভটি তিনটিও জব্দ করা হয়েছে।
এ ঘটনায় আহত হেবলের মেয়ে মরিয়ম বাদী হয়ে শনিবার সকালে ১৪-১৫ জনকে আসামি করে থানায় হত্যা চেষ্টা মামলা করেছেন।
নলডাঙ্গা থানার ওসি মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের আভ্যন্তরীণ কোন্দলে এ ঘটনা ঘটেছে। অপর আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

শেয়ার করুন