ঘরে অনাহূত কেউ ঢুকলেই বলি!

0
110
Print Friendly, PDF & Email

‘ঘরে বাইরের কেউ ঢুকলেই বলি দিয়ে ফেলবে। তারপর এটা আমি দেখব। চিন্তার কিছু নেই।’
এ কথা বলে নতুন করে জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি করেছেন পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের আরেক নেতা অরূপ চক্রবর্তী। বাঁকুড়া জেলায় দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে তিনি যা বলেন, গতকাল মঙ্গলবার একটি বাংলা টিভি চ্যানেলের খবরে এর ফুটেজ প্রচার করা হয়।

গতকাল এনডিটিভি ও জিনিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। অরূপ দাবি করেন, তিনি আত্মরক্ষার্থে এ কথা বলেছেন।

তৃণমূলের আরেক নেতা টালিউড তারকা তাপস পালের নারীদের নিয়ে করা আপত্তিকর মন্তব্য নিয়ে যখন পশ্চিমবঙ্গে প্রচণ্ড তোলপাড় চলছে, এ সময় দলের আরেক নেতা অরূপ এমন বেফাঁস মন্তব্য করলেন।
অরূপ বলেন, মানুদিহ গ্রামে সম্প্রতি বিজেপির কর্মীদের সঙ্গে তৃণমূলের স্থানীয় লোকজনের সংঘর্ষ হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে তিনি সেখানে গিয়ে কর্মীদের উদ্দেশে এ কথা বলেন।

অরূপ বলেন, ‘আমার এই বক্তব্য কেন সমস্যার সৃষ্টি করবে? আমি আত্মরক্ষার অধিকার নিয়ে কথা বলেছি। যদি কেউ আমার বাড়িতে হামলা করে, অথবা বাড়ির মেয়েদের জোর করে তুলে নিয়ে যায়, তাহলে কি একজন নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করব? আমি কি নিজেকে রক্ষার জন্য আমার অধিকার প্রয়োগ করব না?’
তৃণমূলের এই নেতা বলেন, ‘আমি বলেছি, যদি কেউ তৃণমূল কর্মীদের বাড়িতে রায়ট করতে আসে, তাহলে তাঁর আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে। সেই বহিরাগতকে হত্যা করার অধিকার তাঁর রয়েছে।’
এদিকে নারীদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় তাপস পালের সাংসদ পদ বাতিলের দাবি উঠেছে। তাঁকে গ্রেপ্তারের দাবিতে গতকাল রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা বিক্ষোভ করেছেন। চন্দননগরের বাড়ির সামনে তাঁর কুশপুত্তলিকা পোড়ানো হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাজ্যের বিভিন্ন থানায় তাপসের বিরুদ্ধে মামলা করেছে বিজেপি, বামফ্রন্ট ও বিভিন্ন নারী সংগঠন। আজ বুধবার কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করছেন কৃষ্ণনগরের আইনজীবী শমীক সান্যাল।
এর আগে পঞ্চায়েতের এক সদস্যকে হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছিলেন বীরভূমের তৃণমূলের প্রধান অনুব্রত মণ্ডল। এর আগের দিন তিনি তাঁর কর্মীদের উদ্দেশে বলেছিলেন, ‘বিরোধীদের বাড়িঘরে আক্রমণ চালাও। আর পুলিশ তাদের বাঁচাতে এলে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা হামলা করো।’

শেয়ার করুন