চট্টগ্রামসহ দেশের ১২ উপজেলায় কাল থেকে রোজা শুরু

0
27
Print Friendly, PDF & Email

দেশে চাঁদ দেখা যাক আর না যাক চট্টগ্রামসহ দেশের ১২ উপজেলায় কাল শনিবার থেকে রমজান শুরু হচ্ছে। এসব উপজেলার ৬০ গ্রামের ৫ হাজার পরিবারের প্রায় ২ লাখেরও বেশি মানুষ রোজা রাখবেন। সে হিসেবে তারা চাঁদ দেখার আগে ঈদ উৎসবও পালন করবেন।  

তবে এসব লোকজন বলছেন চাঁদ দেখেই তারা রোজা রাখা শুরু করবেন। এ চাঁদ শুধু দেশে নয় মধ্যপ্রাচ্যের সৌদি আরবসহ বিশ্বের যে কোন দেশে দেখা গেলেই হয়। যাদের সাথে তাল মিলিয়ে রোজা, ঈদ ও কোরবানি পালন করেন তারা। যা বাংলাদেশের একদিন আগে হয়ে থাকে প্রতিবছর।

এসব লোকজন জানান, দেশে যারা এভাবে রোজা রাখেন তারা চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার মির্জাখীল দরবার শরীফের অনুসারী। প্রায় ২০০ বছর আগে দরবার শরীফের তৎকালীন গদিনশীন পীরের নির্দেশে এ নিয়ম মানা হচ্ছে।

সূত্র জানায়, চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার কাঞ্চন নগর, সাতবাড়িয়া, হারালা, বাইনজুড়ী, বরকল ও কানাইমাদারী। সাতকানিয়া উপজেলার মির্জাখীল, চরতী সুইপুরা ও গাটিয়াডেঙ্গা। বাঁশখালী উপজেলার কালীপুর, চাম্বল, শেখেরখীল।

আনোয়ারা উপজেলার বরুমচড়া ও তৈলারদ্বীপ, পটিয়া উপজেলার কালারপুল, হাইদগাঁও, মলপাড়া, পৌরসদর ও বাহুলী। বোয়ালখালী উপজেলার চরণদ্বীপ, বেক্সগুরা ও সারোয়াতলী। কক্সবাজার জেলার মহেশখালী, রাজাখালী, টেকনাফ ও হ্নীলাতে প্রায় ৩ হাজারেরও বেশি পরিবারে দেড় লাখ মানুষ মির্জাখীলের অনুসারি।

এছাড়া মাদারীপুর জেলার ৪টি উপজেলায় এক হাজারেরও বেশি পরিবারের প্রায় ৫০ হাজারের মত মানুষ মির্জাখীলের অনুসারি আছে। যারা নিয়ম অনুযায়ী সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে কাল শনিবার থেকে রোজা রাখা শুরু করবেন।

ভক্তদের মতে আল্লাহ এক, পৃথিবী এক, চন্দ্র-সূর্য এক। সে হিসেবে চাঁদের তারিখ অনুযায়ী সৌদি আরবে যে দিন রোজা, ঈদ ও কোরবানি হয় সারাবিশ্বেও সে দিন থেকে একসাথে রোজা ঈদ ও কোরবানি পালন করা উচিত।

সাতকানিয়া উপজেলার মির্জাখীল এলাকার ভক্ত মাওলানা রুকন উদ্দিন(৬২) জানান, বিগত ২০০ বছর আগে তৎকালীন গদিনশীন পীর মাওলানা মুখলেছুর রহমান (রহঃ) পৃথিবীর যে কোন দেশে চাঁদ দেখা গেলেই রোজা, ঈদ ও কোরবানি পালনের নিয়ম প্রবর্তন করেন। যা পীরের ভক্তরা আজও মেনে চলছে।  

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে মির্জাখীল দরবার শরীফের অনুসারী মৌলানা মতি মিয়া মনচুর ঢাকাটাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সৌদি আরবসহ বিশ্বের প্রায় ৫১টি দেশের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশে মির্জাখীল ভক্তরা রোজা, ঈদ উৎসব ও কোরবানি পালন করে। বিশেষ করে হানাফী মাজহাবের অনুসারীরাই এ নিয়ম পালন করে থাকে।

তিনি জানান, চট্টগ্রামের ৬ উপজেলা, কক্সবাজার জেলার ২ উপজেলা ও মাদারীপুর জেলার ৪ উপজেলার প্রায় ৬০ গ্রামের ২ লক্ষাধিক মানুষ ওই নিয়মেই রোজা রাখেন।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের প্রায় ৫১টি দেশে আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল থেকে রোজা রাখা শুরু হবে। তবে গ্রীনিচ মান অনুযায়ী বাংলাদেশে আজ চাঁদ দেখা যাওয়ার কোন সম্ভবনা নেই বলে জানান ভুগোলবিদরা।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর চট্টগ্রাম ঘাটির ভুগোলবিদ মেজর মিরাজুল ইসলাম ঢাকাটাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সূর্য্যের চারপাশ ঘুরে আসতে পৃথিবীর চব্বিশ ঘন্টা সময় লাগে। ফলে পৃথিবীর সকল দেশের গ্রীনিচ সময়ে তারতম্য ঘটে। যার কারণে একই সময়ে পৃথিবীর কোন দেশে চন্দ্র-সূর্য্য দেখা যায় না। তবে রোজা রাখা, ঈদ পালন করা রাষ্ট্রীয় নিয়মেই অনুযায়ী হওয়া উচিত।

শেয়ার করুন