আমরা বর্তমানে শ্বাসরুদ্ধ; মির্জা ফখরুল

0
61
Print Friendly, PDF & Email

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, “ক্ষমতায় টিকে থাকতে বর্তমান অবৈধ ও অনৈতিক সরকার গুম, খুনের মাধ্যমে দেশকে ভয়ার্ত ত্রাসের রাজত্বে পরিণত করেছে। তাই জনগণকে এর থেকে রক্ষা করতে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সবাইকে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে কৃষক দলের সাবেক সভাপতি ও সাবেক এমপি মাহবুবুল আলম তারা’র মৃত্যুতে কৃষক দল আয়োজিত শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফখরুল এসব কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, “আমরা বর্তমানে একটি শ্বাসরুদ্ধকর ভয়ংকর পরিস্থিতির মধ্যে বাস করছি। আপনারা দেখেছেন কিছুদিন আগে মিরপুরের কালশীতে ঘরের দরজা বন্ধ করে কীভাবে নৃশংসভাবে ৯ জনকে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। এটা মধ্যযুগীয় বর্বরতাকেও হার মানায়। এর আগে ফেনীতে প্রকাশ্য দিবালোকে রাস্তায় গাড়িতে আগুন দিয়ে ও গুলি করে উপজেলা চেয়ারম্যানকে হত্যা করা হলো। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জে মানুষকে খুন করে পরে পেট কেটে ইট বেঁধে লাশ নদীতে ফেলে দেয়া হলো।এসবের জন্য বর্তমান অবৈধ ও অনৈতিক সরকার দায়ী।

সরকার রাষ্টযন্ত্রকে ব্যবহার করে প্রশাসনসহ সব রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানকে অকার্যকর বানিয়ে রেখেছে বলেও দাবি করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব। মাহবুবুল আলম তারার স্মৃতিচারণ করে ফখরুল বলেন, “তিনি এমন সময় চলে গেলেন যখন দেশের কোনো মানুষ নিরাপদ নয়। সারাদেশে এক শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। মনে হয় তিনি চলে গিয়ে বেঁচে গেছেন।” তার (তারা) মৃত্যুতে শোককে শক্তিতে পরিণত করে আগামী দিনে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে তিনি নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু’র সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য দেন বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আব্দুস সালাম, সহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি প্রমুখ। এছাড়া প্রয়াত মাহবুবুল আলম তারার পরিবারের পক্ষ থেকে তার ভাইয়ের মেয়ে আইনুন নাহার রেখা, নিকটত্মীয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ড. আমজাদ হোসেন বক্তব্য দেন।

শেয়ার করুন