নওগাঁয় স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা করেছে স্বামী

0
83
Print Friendly, PDF & Email

প্রতিনিধি নওগাঁ: নওগাঁর পত্নীতলায় শশুর বাড়ীতে বেড়াতে এসে শয়ন ঘরে স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে গেছে পাষন্ড স্বামী৷ ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার গভীর রাতে উপজেলার ছোট বিদিরপুর গ্রামে৷ ঘটনার পর গতকাল বুধবার বেলা ১১টার দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ নিহতের নাম আসমা খাতুন (৩০)৷ সে উপজেলার বিদিরপুর গ্রামের মফিজ উদ্দিনের মেয়ে৷
জানা গেছে, গত ২০০০ সালে আসমার সাথে পাশ্ববর্তী ধামইরহাট উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের আহম্মদ আলীর ছেলে আতিকুল ওরফে সামেদুলের বিয়ে হয়৷ পরবর্তী সময়ে তাদের ঘরে এক পুত্র সনত্মানের জম্মগ্রহন করে৷ আতিকুল সব সময় নেশা পান করায় প্রায় ৫ বছর ধরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদের কারনে আসমা বাবার বাড়িতে চলে আসে৷ কিন্তু এরই মধ্যে বেশ কিছুদিন পূর্বে আতিকুল তার বাড়ীতে এসে স্ত্রীর সাথে মেলামেশা শুরু করে৷ এরই কারনে গত ১জুন আতিকুল শশুর বাড়ীতে বেড়াতে এসে কয়েক দিন অবস্থান করে৷ ঘটনার সময় মঙ্গলবার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে পাষন্ড স্বামী আতিকুল তার স্ত্রীকে জবাই করে পালিয়ে যায়৷ সকালে বাড়ীর দরজা খোলা দেখে নিহত আসমার ভাই শরিফুল ইসলাম তার বোনের ঘরে গিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় বোনকে খাটের ওপর পড়ে থাকতে দেখে চিত্‍কার শুরু করে৷
এ বিষয়ে পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রফিক জানান, সংবাদ পেয়ে সকাল ১০টার দিকে নিহত আসমার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে৷ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে৷ ঘটনার পর থেকে আতিকুল পলাতক রয়েছে৷#

শেয়ার করুন