জামায়াতকে নিয়ে ঘুরলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন না : খালেদা জিয়ার উদ্দেশে তথ্যমন্ত্রী

0
65
Print Friendly, PDF & Email

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া জঙ্গীবাদকে পাশে রেখে এবং জামায়াতকে কোলে রেখে গণতন্ত্রের রানী হতে পারবেন না।
‘খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের কথা মাঝে মাঝে বলেন, কিন্তু জামায়াতকে নিয়ে ঘুরেন’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জঙ্গীবাদদের দোসর জামায়াতকে নিয়ে ঘুরলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন না।’
তথ্যমন্ত্রী আজ জাতীয় প্রেসকাবে ‘সাপ্তাহিক নতুন কথা’ আয়োজিত ‘জাতীয় ও জনজীবনের নিরাপত্তা এবং গণমাধ্যম’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
‘সাপ্তাহিক নতুন কথা’র সম্পাদক হাজেরা সুলতানার সভাপতিত্বে এতে বক্তৃতা করেন ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি এবং বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, ভাষাসৈনিক-সাংবাদিক কামাল লোহানী, বাংলাদেশ প্রেস ইনিস্টিটিউট (পিআইবি)’র মহাপরিচালক শাহ আলমগীর, ওয়ার্কাস পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসীদের পক্ষে ওকালতি করেন। জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসীরা গ্রেফতার হলে তাদের জন্য ওকালতি শুরু করেন।
তথ্যমন্ত্রী গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘খালেদা জিয়া জঙ্গীদের ত্যাগ করেনি, তাদের দোসর হয়ে কাজ করছে। তারপরেও গণমাধ্যম কেন খালেদা জিয়াকে জঙ্গীবাদের দোসর হিসেবে চিহ্নিত করছে না।’
তিনি বলেন,‘গণমাধ্যমকে জঙ্গীবাদ অথবা গণতন্ত্র এর যেকোনো একটির পক্ষ নিতে হবে। এ লড়াইয়ে ভারসাম্য রক্ষার মাঝখান দিয়ে হাঁটার রাজনীতি পরিহার করতে হবে।’
তথ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া দেশের জঙ্গীবাদদের সমর্থন না করলে দেশের জনজীবনের নিরাপত্তা আরও বৃদ্ধি পেতো।
গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, গণমাধ্যম তথ্যশক্তি দিয়ে অপর তিনটি স্তম্ভকে সহায়তা করছে। গণমাধ্যমের কারনেই দেশের বড় বড় দুর্নীতিবাজরা দুদকের বারান্দায় ঘোরাফেরা করতে বাধ্য হচ্ছে।
রাশেদ খান মেনন বলেন,দেশে পুশব্যাক ও পুশ ইন হলে দেশের জনগণ নিরাপত্তার প্রশ্নে প্রতিদিন নানা সংকটে পড়বে। তাই এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের আরও সচেতন হতে হবে।
গণমাধ্যমের ক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়া গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনলাইনসহ গণমাধ্যমকে নিয়ম, নীতি ও জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে। তবেই বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার আরও উন্নতি হবে।
কামাল লোহানী বলেন, গণমাধ্যম এর স্বাধীনতা রয়েছে । জনগনের নিরাপত্তা ও জনগনের পে গণমাধ্যমকে কাজ করার আহবান জানিয়ে তিনি দলবাজি বন্ধ করে নিরপে হয়ে কাজ করার উপর গুরুত্বারোপ করেন।।
বৈঠকে লিখিত প্রবন্ধ পাঠ করেন ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি বাপ্পাদিত্য বসু।
সূত্র : বাসস।

শেয়ার করুন