পুলিশের গুলিতে মাদক ব্যবসায়ী আহত

0
509
Print Friendly, PDF & Email

সাতক্ষীরায় পুলিশের গুলিতে শুকুর আলী (৩৫) নামের এক মাদক ব্যবসায়ী আহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার ভোর সোয়া পাঁচটার দিকে তাঁকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুকুর আলীর বাড়ি সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার শৈইলপুর গ্রামে। পুলিশ জানায়, মাদক চোরাচালানকারী একটি দলকে ধরতে গেলে গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে। সেখানে শুকুর আলী গুলিবিদ্ধ হন।

শুকুর আলীর স্ত্রীর দাবি, গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে তাঁর স্বামীকে সাদা পোশাকের পুলিশ বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়।

সাতক্ষীরা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পরিদর্শক ইমদাদুল হকের ভাষ্য, গতকাল রাতে মাদক চোরাচালানি একটি চক্র ভারত থেকে মাদক নিয়ে সাতক্ষীরার দিকে যাবে—কালীগঞ্জ থানার পুলিশের কাছে এমন খবর ছিল। এর ভিত্তিতে রাতে পুলিশ কালীগঞ্জ সেতুর পাশে আগে থেকে ওত পেতে থাকে। আজ ভোর পৌনে চারটার দিকে মোটরসাইকেলে করে কয়েকজনকে যেতে দেখে পুলিশ তাদের দাঁড়াতে বলে। এ সময় তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়লে তারা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় শুকুরকে পড়ে থাকতে দেখে তাঁকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। উন্নত চিকিত্সার জন্য পরে তাঁকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ইমদাদুল হকের ভাষ্যমতে, শুকুর আলী একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তাঁর কাছ থেকে ১০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিত্সক পরিমল কুমার বিশ্বাস জানান, শুকুর আলীর ডান পায়ের উরুতে গুলি লেগেছে। অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।

শুকুর আলীর স্ত্রী রেশমা খাতুনের ভাষ্য, গতকাল রাত দুইটার দিকে তাঁর স্বামী শুকর আলীকে সাদা পোশাকে পুলিশ শৈইলপুর গ্রামের বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে আসে। সকালে জানতে পারেন গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাঁর স্বামী সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিত্সাধীন রয়েছে। তিনি দাবি করেন, তাঁর স্বামী এক সময় মাদকদ্রব্য পাচার ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। গত দু-তিন বছর ধরে তিনি এসব ব্যবসার সঙ্গে জড়িত নেই

শেয়ার করুন