শেষ হলো দুইদিন ব্যাপী শিশুসংসদ অধিবেশন

0
93
Print Friendly, PDF & Email

বাংলাদেশ শিশুসংসদের দুই দিনের অধিবেশন বৃহস্পতিবার বিকেলে শেষ হয়েছে। এতে সরকার ও বিরোধীদলের সদস্যদের প্রশ্নোত্তর পর্ব ছাড়াও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

বুধ ও বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনে এ শিশুসংসদ অধিবেশন পরিচালিত হয়।

এতে শিশু কমিশন গঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিশুদের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন প্রতিরোধ বিল উত্থাপন ও পাস করা হয়।

অধিবেশনে স্পিকারের দায়িত্ব পালন করে করবী নাজনীন ও ডেপুটি স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে তাসনুভা চৌধুরী স্মিথা।
শিশুসংসদ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী ছিলেন খুলনার শিশুসংসদ এইচ এম মুনতাসিম সীমান্ত এবং বিরোধীদলীয় নেতা সিলেটের ফারজানা আফরোজ।

মন্ত্রিসভার সদস্য ছিল আইন-বিচার, অর্থ, স্বরাষ্ট্রসহ ১৮ জন ও সংসদ সদস্য ১৫৪ জন।

এদের মধ্যে ৮৪ জনকে সেভ দ্য চিলড্রেন ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমি, ৭০ জনকে ব্রিটিশ কাউন্সিল, ব্র্যাক ও দ্য হাঙ্গার প্রজেক্ট থেকে, বাকিদের নির্বাচত করা হয় প্রান্তিক জনগোষ্ঠী ও প্রতিজেলা থেকে ন্যূনতম একজনকে।

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ কীভাবে চলে, মন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও বিরোধীদলীয়-সংসদ সদস্যরা কীভাবে বক্তব্য উথাপন করেন, সে সব শিখেছে শিশুসংসদ সদস্যরা দুদিনের এই অধিবেশন থেকে।

বিভিন্ন প্রশ্নে শিশু সংসদ সদস্যরা বাংলাদেশের শিশুরা যাতে কোনো অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয়, জাতিসংঘ শিশু অধিকার সনদ অনুযায়ী শতভাগ সরকার বাস্তবায়ন করে, সংসদের মন্ত্রীদের কাছে এ সব দাবি তুলে ধরে।  

বাংলাদেশের কোনো শিশুই যেন নির্যাতন-বঞ্চিত না হয়, সে সব দাবিও তুলে ধরা হয় সংসদের কাছে। সংসদীয় গণতন্ত্রসহ সব নাগরিক তাদের জীবনে প্রভাব ফেলে এমন সিদ্ধান্তগুলোতে সক্রিয় অংশগ্রহণ করতে পারে, এমন অধিকার চায় তারা।

এ ছাড়াও সংসদীয় গণতন্ত্রের মূলনীতি, আচার-মূল্যবোধ সর্ম্পকে জ্ঞানলাভ, সামাজিক যোগাযোগ, জনসম্মুখে বক্তব্য প্রদানে দক্ষতা, গণতন্ত্রে তাদের ভূমিকা সম্পর্কে সম্যক ধারণা সম্পন্ন হয়ে সক্রিয় সুনাগরিক হতে পারে, সে জন্য দুই দিনব্যাপী এ শিশু সংসদ অধিবেশনের আয়োজন করা হয়।

‘ইমপ্রুভিং ডেমোক্রেসি থ্রু পালামেন্টারি ডেভলপমেন্ট’ প্রকল্প আয়োজিত এ কর্মসূচিতে সহযোগিতা করেছে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ, ব্রিটিশ কাউন্সিল, সেভ দ্য চিলড্রেন, ইউএনডিপি, কিংডম অব নেদারল্যান্ডস, ব্র্যাক, দ্য হাঙ্গার প্রজেক্ট ও শিশু একাডেমি।

সংসদ সচিবালয়ের সচিব আশরাফুল মকবুলের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন- সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া, সংসদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, ইমপ্রুভিং ডেমোক্রেসি থ্রু পালামেন্টারি ডেভলপমেন্ট প্রকল্প পরিচালক প্রণব চক্রবর্তী, উপদেষ্টা ডোনা বাগবি স্মিথ, ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ আবাসিক পরিচালক ব্রেন্ডন ম্যাকশোরি ও সেভ দ্য চিলড্রেন বাংলাদেশের দেশিয় পরিচালক মাইকেল ম্যাকগ্রাথ প্রমুখ।

শেষে অধিবেশনে অংশগ্রহণকারী সব শিশুকে একটি করে ক্রেস্ট তুলে দেন প্রধান অতিথি।

বিকেল পাঁচটায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার পরিভ্রমণ শেষে শিশু সংসদ সদস্যদের কার্যক্রম সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।

শেয়ার করুন