আমার স্ত্রী ধর্ষিত হয়েছিল: জুমা

0
119
Print Friendly, PDF & Email

দক্ষিণ আফ্রিকার দুর্নীতিবিরোধী এক প্রতিবেদনের সমালোচনা করতে গিয়ে প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা তার স্ত্রী ধর্ষিত হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন।

ওই প্রতিবেদনে প্রেসিডেন্টের বাড়ির নিরাপত্তা ব্যবস্থা আধুনিক করার উদ্যোগে বিপুল ব্যয়ের সমালোচনা করা হয়েছে।

রাষ্ট্রীয় ২৩ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে ওই নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয় বলে তাতে উল্লেখ করা হয়েছে।

সোমবার আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেসের (এএনসি) নির্বাচনী প্রচার শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই প্রতিবেদনের সমালোচনা করে জুমা এ কথা জানান।

নির্বাচনের আগে প্রকাশিত ওই দুর্নীতি প্রতিবেদন তার দল এএনসিকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

৭ মে দক্ষিণ আফ্রিকার পরবর্তী সাধারণ নির্বাচন। এই নির্বাচনে জুমার দল এএনসি ৬৪ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়লাভ করবে বলে দক্ষিণ আফ্রিকার সানডে টাইমস পত্রিকায় প্রকাশিত এক নির্বাচন পূর্ব জরিপে আভাস পাওয়া গেছে।

এই জরিপে প্রেসিডেন্ট জুমার ব্যক্তিগত জনপ্রিয়তা আগের চেয়ে হ্রাস পেয়েছে বলে দেখা গেছে। তবে এএনসি’র পার্লামেন্ট সদস্যদের ভোটে পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্য জুমা আবারও দেশটির প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ওই জরিপ চলাকালীন দেশটির সরকারি আইন কর্মকর্তা থুলি ম্যাডোনসেলা ওই দুর্নীতিবিরোধী প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেন।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, “জুমা তার বাড়ি এনকান্ডলা’র নিরাপত্তা ব্যবস্থা আধুনিক করতে গিয়ে অতিরিক্ত সুবিধা নিয়েছেন। ওই বাড়িতে একটি পাখির খাঁচা, অ্যাম্ফিথিয়েটার ও সুইমিং পুলেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে।”

এই প্রতিবেদনের সমালোচনা করে জুমা বলেন, “এটি ভোটারদের কোনো ইস্যু নয়। আমি এনকান্ডলা নিয়ে উদ্বিগ্ন নই। জনগণও এটা নিয়ে উদ্বিগ্ন নয়। আমি মনে করি যারা এটি নিয়ে উদ্বিগ্ন, তারা হচ্ছেন আপনারা, গণমাধ্যম এবং বিরোধীদল।”

এ সময় নিজের বাড়ির নিরাপত্তা ব্যবস্থা আধুনিক করার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন তিনি।
তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগকে পক্ষপাতদুষ্ট বলে অভিযোগ করেন। রাষ্ট্রপ্রধানের নিরাপত্তা বিধান করার গুরুত্ব তুলে ধরেন তিনি।

অতীতে তিনি ও তার পরিবার কী ধরনের নিরাপত্তাহীনতার শিকার হয়েছিলেন তাও তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, “সহিংসতার সময় দুবার আমার বাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়েছিল। দ্বিতীয়ত অপরাধীরা এসে আমার স্ত্রীকে ধর্ষণ করেছিল।”

১৯৯৪-৯৯ পর্যন্ত প্রাদেশিক মন্ত্রী থাকার সময় এসব সহিংস ঘটনার শিকার হয়েছিল জুমার পরিবার।

শেয়ার করুন