মমতা গরম বিজেপি নরম

0
100
Print Friendly, PDF & Email

বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশ ভারতের লোকসভা নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলোর তর্জন-গর্জনের গুমোট হাওয়া যত বাংলাদেশ সীমান্তের দিকে এগোচ্ছে, শরণার্থী ও অনুপ্রবেশ নিয়ে ক্রমশ ততটাই সুর নরম করছে হিন্দুত্ববাদ বিশ্বাসী দেশটির কট্টরপন্থী দল বিজেপি। দিনকয়েক আগেই পশ্চিমবঙ্গের শ্রীরামপুরের সভায় বিজেপি নেতা নরেন্দ্র মোদি বলে গিয়েছিলেন, ১৯৪৭ সালের পরে যারা ভারতে এসেছেন, তারা বিছানা-বেডিং বেঁধে রাখুন। ১৬ মের পরে তাদের বাংলাদেশে ফিরে যেতে হবে।
আর এ নিয়েই বিজেপির ওপর সুর চড়াচ্ছেন পশ্চিবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। দিনকয়েক আগে পশ্চিমবঙ্গে এসে বাংলাদেশীদের ভারত ছাড়া করতে হবে বলে আক্রমণাÍক বক্তব্য দিয়ে গেলেন বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদি। তারপর থেকেই মাথা গরম মেয়েখ্যাত মমতা দফায় দফায় গরম গরম বক্তব্যে বিজেপিকে চাবকাচ্ছেন। মমতার হাত থেকেই রেহাই পেতে শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের এক নির্বাচনী প্রচারণায় সুর নরম করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি রাজনাথ সিং। মেদিনীপুরের কেশিয়াড়িতে এদিন এক জনসভায় রাজনাথ বলেন, কারও ওপরে অত্যাচার হবে না। কিন্তু যারা বিনা পাসপোর্টে এখানে এসেছেন, তাদের ওখানে (বাংলাদেশে) ফিরে যাওয়ায় উচিৎ। আমরা তাদের চিহ্নিত করব।
শুক্রবার রাজনাথের ওই বক্তব্যের ত্বরিত জবাবে মমতা ব্যানার্জি বলেন, কেউ কেউ চান, দুই বাংলা হিন্দু-মুসলিমে ভাগাভাগি হয়ে যাক। আমি জানি, পশ্চিমবঙ্গ বঙ্গভঙ্গ চায় না। আমার কাছে নির্দিষ্ট খবর রয়েছে, দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা হয়েছে। আমরা দাঙ্গা লাগাব না। দাঙ্গা লাগানো আমার উদ্দেশ্য নয়।
এদিকে মেদিনীপুরের জনসভায় মমতার দিকে সৌভাগ্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন রাজনাথ। মমতাকে শান্ত করতে পশ্চিমবঙ্গের উন্নয়নের বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা দিয়ে গেলেন রাজনাথ। তিনি বলেন, তার দল আগামী সরকার গঠন করলে পশ্চিমবঙ্গের জন্য বড়সড় প্যাকেজ দেয়া হবে।
দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিড়লাপুর এবং উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটি কলকাতা সংলগ্ন দুই এলাকার দুটি সভায় রাজনাথ মমতাকে বিজেপির সঙ্গে সংঘাতে পথে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। তার আশ্বাস, কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে একমাত্র বিজেপির সরকারই পারে পশ্চিমবঙ্গের জন্য বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের কথা বিবেচনা করতে। খবর এনডিটিভি।
কেন্দ্রের ইউপিএ সরকারের কাছে রাজ্যের ঋণের ওপর সুদ মওকুফের দাবি জানিয়েও কোনো কাজ হয়নি বলে বারবারই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মমতা ব্যানার্জি। তার ওই দাবিকে ন্যায়সঙ্গত বলে তিন মাস আগে ব্রিগেডে এসে মন্তব্য করেছিলেন রাজনাথই। কিন্তু এখন ভোট-পর্ব চলাকালীন ও মোদির চড়া সুরের মধ্যে তার অবস্থান যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই বিজেপি সূত্রের ব্যাখ্যা।
ডায়মন্ড হারবার কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অভিজিৎ দাসের সমর্থনে প্রচারে এসে বিড়লাপুরে রাজনাথ বলেন, মমতাজি, সিপিএমের সঙ্গে ঝগড়া করুন আপনি। বিজেপি সিপিএমকে নিয়ে সরকার করবে না। কংগ্রেস আপনার স্পেশাল আর্থিক প্যাকেজের ব্যবস্থা করেনি। সরকার গঠন করলে বিজেপিই হয়তো তা করতে পারে।
আগে ব্যারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী রুমেশ কুমার হান্ডার সমর্থনে নৈহাটির সভায় দলের সর্বভারতীয় সভাপতি বলেন, মমতাকে একটা প্রশ্ন আছে। মার্ক্সবাদীদের সঙ্গে কংগ্রেস লড়ে না। বিজেপি লড়ে

শেয়ার করুন