বিএনপির কেন্দ্রীয় ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে ইবি জিয়া পরিষদের মানববন্ধন

0
118
Print Friendly, PDF & Email

আশরাফুল ইসলাম অনিক , কুষ্টিয়া প্রতিনিধি \\
বিএনপির কেন্দ্রীয় ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে ইবি জিয়া পরিষদ৷ সমাবেশে দ্রুত নেতাকর্মীর মুক্তি দাবী করেছে বক্তারা৷ গত শনিবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেটে সকাল সাড়ে ১০টায় এ মানব বন্ধন করে৷
জানা গেছে, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরম্নল ইসলাম আলমগীর, জিয়া পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি কবীর মুরাদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম রাশেদ ও তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক মুত্তাকিন সহ সারা দেশে অন্যায়ভাবে আটককৃত সকল নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবীতে মানব বন্ধন করে ইবি জিয়া পরিষদ৷ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেটের সামনে খুলনা-কুষ্টিয়া মহাসড়কে দেড়’শতাধিক শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী এ মানব বন্ধনে অংশ নেয়৷ এসময় এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ইবি জিয়া পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. শহীদুল ইসলাম নূরীর সভাপতিত্বে ও কর্মকর্তা ইউনিটের সাধারন সম্পাদক আব্দুল মুঈদ বাবুলের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ড. এমতাজ হোসেন, সাবেক শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. এম এয়াকুব আলী, প্রফেসর ড. নজীবুল হক, প্রফেসর ড. তোজাম্মেল হোসেন, জিয়া পরিষদের সাধারন সম্পাদক প্রফেসর ড. আব্দুস শাহীদ মিয়া, জিয়া পরিষদ কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি মোঃ পারভেজ মিয়া, সাধারন সম্পাদক রুহুল আমিন বাবু, জিয়া পরিষদ সহায়ক ইউনিটের সভাপতি আব্দুল লতিফ, তোজাম্মেল হক প্রমুখ৷ মানববন্ধন থেকে বক্তারা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জিয়া পরিষদ সাধারণ ইউনিট সভাপতি জিয়া পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি কবির মুরাদ, দৈনিক আমার দেশের সম্পাদক মাহমুদুর রহমান, ইবি ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রাশিদুল ইসলাম রাশেদসহ গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকমর্ীর মুক্তি দেয়ার জন্য সরকারে প্রতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানান৷
ইবি শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপিত প্রফেসর ড. এম এয়াকুব আলী বলেন-‘গণতন্ত্রের ছদ্মাবরণে থাকা বর্তমান সরকার জনমত হারিয়ে বিরোধী মতকে দমন করার জন্য ফ্যাসিবাদকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করেছে৷ মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও এই সরকার স্বৈরাচারীপন্থায় দেশ চালাচ্ছে৷ ভোট বিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা এই সরকারের সকল কর্মকান্ড অবৈধ৷ সম্প্রতি উপজেলা নির্বাচনে সরকারের নজীরবিহীন ভোট ডাকাতি করে প্রমাণ করেছে এই সরকারের অধীনে কোন নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়৷’
সমাবেশে ইবি জিয়া পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. শহীদুল ইসলাম নূরী বলেন,’ একদলীয় প্রহসন মূলক নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসে আওয়ামী সরকার বর্তমান বাংলাদেশকে একটি কারাগারে পরিনত করে রেখেছে৷ এখানে কোন মানুষই স্বাধীনভাবে চলতে পারছেনা, মত প্রকাশ করতে পারছেনা, মৌলিক অধিকার আদায় করতে পারছেনা৷ তার ধারায় আমাদের নেতাকর্মীদের জেলে পুরে, গুম করে, পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাস বাহীনি লেলিয়ে দিয়ে পাখর মত গুলি করে মারছে৷ অতিদ্রুত যদি আমাদের আটককৃত কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতাকর্মীর মুক্তি দেয়া না হয়, তাহলে আগামী দিনে আমরা রাজপথে নামতে বাধ্য হব৷’
এসময় মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ড. আ খ ম ওয়ালিউল্লাহ, প্রফেসর ড.শফিকুল ইসলাম, প্রফেসর ড. আব্দুর রহমান আনোয়ারী, ড.এ বি এম জাকির হোসেন, প্রফেসর ড. আকরাম হোসেন মজুমদার, ড. লুত্‍ফুর রহমান, ড. রফিকুল ইসলাম, মোঃ সেলিম, আব্দুল গফুর গাজী, প্রমূখ৷

শেয়ার করুন