সুইডেনে একতা কালচারাল অর্গানাইজেশনের উদ্যোগে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন

0
56
Print Friendly, PDF & Email

গত ৫ই এপ্রিল শনিবার স্কার্পনেক কুলতুরহুসে (কালচারাল সেন্টার) একতা কালচারাল অর্গানাইজেশনের উদ্যোগে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাংলা নব বর্ষবরণ উৎসব কে সামনে রেখে সুইডেন একতার এই উদ্যোগে প্রবাসী বাংলাদেশীরা ছাড়াও সামিল হন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

গ্রীষ্মের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে বছরের এই সময়ে স্টকহোমের দিনগুলো বেশ লম্বা। তাই সন্ধ্যা ৭টায় বেজে গেলেও দিনের আলো ফুরিয়ে যায় না। স্নিগ্ধা খানের পরিচালনায়, পড়ন্ত বিকেলে শুরু হওয়া এই অনুষ্ঠানটিকে তিন ভাগে ভাগ করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে বক্তব্য রাখেন সুইডেনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জনাব গোলাম সারোয়ার, ফাস্ট-সেক্রেটারি জনাব কামরুজ্জামান, সুইডিশ ভেনস্টার পার্টির আনা মারর্গারেট , চার্চ অব সুইডেনের প্রতিনিধি ক্রিস্টিনা মারর্গারেট, রাফিক আমেরি ও মেহেরুন নাজ সহ আরো অনেকে। এছাড়া অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জিয়া পরিষদ সচিব মাসুদুল হক হিমু।

দ্বিতীয় পর্বে বিভিন্ন পরিবেশনায় অংশ নেয় প্রবাসী বাংলাদেশী নতুন প্রজন্ম। এই পর্বের প্রথমেই নৃত্য পরিবেশন করে অন্তরা। এর পর কারিন নাজের কোরিওগ্রাফিতে নৃত্য পরিবেশন করেন একদল নৃত্য শিল্পী। এরপর মৌসুমি ভৌমিকের গান পরিবেশন করে অনিমা।

বিরতির পর তৃতীয় পর্বে মঞ্চে আসেন অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণ আবৃতি শিল্পী শিমুল মোস্তফা। প্রথমে তিনি একক আবৃতিতে নাজিম হিকমতের জেলখানার চিঠি, আমার পরিচয়, কেউ কথা রাখেনি সহ অনেক জনপ্রিয় কবিতা আবৃতি করেন। এর পর নিউইয়র্ক হতে আগত শিল্পী নাভিনের গানের সাথে আবৃতি পরিবেশন করেন। তাঁর অনবদ্য পরিবেশনা, বুঁদ হয়ে উপভোগ করেন আগত অতিথিবৃন্দ। সবশেষে একক সংগীত পরিবেশন করেন নাভিন আনা।

বাংলাদেশ হতে আরও শিল্পী আসার কথা থাকলেও ভিসা গত জটিলতার কারণে অনুষ্ঠানে তাঁরা আসতে পারেননি। কিন্তু অংশগ্রহণকারী শিল্পীবৃন্দ তাঁদের প্রাণবন্ত পরিবেশনায় অনুষ্ঠানকে সাফল্য মণ্ডিত করে তোলেন।

অনুষ্ঠানের পাশাপাশি কেউ কেউ বিভিন্ন দেশিয় পণ্য এবং খাবারের পশরা সাজিয়ে বাসেন। দেশ হতে প্রায় সাড়ে ৬ হাজার কিলোমিটার দূর প্রবাসে তা এনে দেয় দেশিয় মেলার আমেজ।

নানা সীমাবদ্ধতা সত্যেও আগামী প্রজন্ম কে দেশিয় সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দেবার এই প্রচেষ্টা কে আগত দর্শকেরা স্বাগত জানান।

শেয়ার করুন