বিন্দুতে আটকে আছে সিন্ধু

0
89
Print Friendly, PDF & Email

এশিয়ান হাইওয়ের আওতায় বাংলাবান্ধা থেকে পঞ্চগড়, রংপুর, বগুড়া, হাটিকুমরুল, বঙ্গবন্ধু সেতু, টাঙ্গাইল, ঢাকা, কাঁচপুর, সরাইল, সিলেট হয়ে তামাবিলে শেষ হবে একটি রুট। এ রুটের দৈর্ঘ্য ৮০৫ কিলোমিটার। এর মধ্যে পঞ্চগড় থেকে তামাবিল পর্যন্ত ৭৫১ কিলোমিটার মহাসড়ক নির্মাণে কয়েকটি প্রকল্প চলমান। কিন্তু পঞ্চগড়-বাংলাবান্ধা মহাসড়কের বাংলাবান্ধা অংশের ১৫০ মিটারের নির্মাণকাজ বন্ধ হয়ে আছে প্রায় দেড় বছর। বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের নো ম্যান্স ল্যান্ডসংলগ্ন হওয়ায় সড়কটির এ অংশের নির্মাণকাজে বাধা দিচ্ছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ)। এ কারণে রোড ইমপ্রুভমেন্ট নেটওয়ার্ক প্রজেক্ট-২ (আরআইএনপি-২) প্রকল্পটির বাস্তবায়ন ঝুলে আছে। এ প্রজেক্ট বাস্তবায়িত না-হওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমও।  এর ফলে বিন্দুতেই আটকে আছে সিন্ধু।
পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা পর্যন্ত ৫৪ কিলোমিটার মহাসড়ক নির্মাণে ২০১০ সালে উদ্যোগ নেয় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর (সওজ)। বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে  আরআইএনপি-২ নামে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ব্যয় ধরা হয় ১৩১ কোটি টাকা। ২০১২ সালের ৩০ জুনের মধ্যে এর নির্মাণকাজ শেষ করার কথা ছিল। এ প্রকল্প বাস্তবায়িত না হওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমও। এর আগেও ভারতের একাধিক সংস্থার বিরোধিতার কারণে ভেড়ামারা-বহরমপুর সঞ্চালন লাইন প্রকল্পের কাজ দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। একই ধরনের ঘটনা ঘটেছে এশিয়ান হাইওয়ের ক্ষেত্রে।
সওজ জানিয়েছে, ভারতের ফুলবাড়ী ক্যাম্পের বিএসএফের সদস্যরা মহাসড়কটির বাংলাবান্ধা অংশের ১৫০ মিটার নির্মাণকাজে বাধা দিয়ে আসছে। বাধা উপেক্ষা করে কাজ করতে চাইলে গুলি করার হুমকি দেওয়া হয়। তাই বাধ্য হয়েই কাজ বন্ধ রাখা হয়।
এশিয়ান হাইওয়েভুক্ত এ মহাসড়কের নির্মাণকাজে বাধা না দেওয়ার জন্য সমপ্রতি শর্তজুড়ে দিয়েছে বিএসএফ। দুই দেশের মধ্যবর্তী সীমান্ত পিলার ৭৩২/১ এস থেকে ৭৩২/৩ এস পর্যন্ত কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের অনুমতি চেয়েছে তারা। এ বিষয়ে অনুমতি দেওয়া হলে বাংলাবান্ধা-পঞ্চগড় মহাসড়কের অবশিষ্ট ১৫০ মিটার নির্মাণে বাধা দেবে না বিএসএফ। এক্ষেত্রে বিএসএফের সঙ্গে আলোচনা করে সমাধানের উদ্যোগ নিতে বিজিবিকে দায়িত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয় গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত এক আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে। এ প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলে আলোচনা দুই দেশের শীর্ষপর্যায়ে গড়াতে পারে।

শেয়ার করুন