পুলিশি অবহেলায় লাশ নিয়ে বিপাকে ঢামেক কর্তৃপক্ষ

0
55
Print Friendly, PDF & Email

পুলিশি অবহেলার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে থাকা লাশ নিয়ে বিপাকে পড়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। মারা যাওয়ার তিন দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও লাশ হাসপাতালের মর্গে পড়ে আছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ২ এপ্রিল দুপুরে ইয়াসিন নামের এক যুবক জুইকে (২০) ঢামেকের ২০৪ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করে পালিয়ে যায়। ওই দিন বিকেল সাড়ে তিনটায় তার মৃত্যু হয়। রোগীর ভর্তি ফাইলে উল্লেখিত ঠিকানা- মিরপুর ১১ পল্লবী।

মর্গে দায়িত্বরত সেলিম ও সুজা জানায়, মারা যাওয়ার তিনদিন পার হলেও এ লাশের কোনো স্বজন না আসায় ভর্তিরত ফাইলের ঠিকানা অনুসারে আমরা ২ এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত বহুবার লাশটির ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পল্লবী থানা পুলিশের স্মরণাপন্ন হয়েছি। কিন্তু পুলিশ প্রতিদিন আসার কথা বলেও আজও আসেনি। গতকাল শুক্রবার পল্লবী থানায় সড়ক দুর্ঘনায় লাশের ব্যাপারে মর্গে এক পুলিশ কর্মকর্তা আসেন। তাকে এ ব্যাপারে বলা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

মর্গ সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালে প্রতিদিন যে হারে লোক মারা যাচ্ছে অনেক সময় সে লাশগুলো ফ্রিজে রাখতে হয়। প্রচণ্ড গরমে লাশ পঁচে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে বিধায় আমরা সেগুলো ফ্রিজে রাখি। অতিরিক্ত লাশের সংখ্য বেশি থাকলে তখন সে লাশগুলো ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে আমাদের সমস্যা হয়ে যায়।

যদি পুলিশ তড়িত কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করতো, তাহলে এ লাশটি এভাবে পঁচে নষ্ট হতো না।

এ ব্যাপারে পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউজ্জামান বাংলামেইলকে জানান, মেয়েটির ঠিকানা না পাওয়ার কারণে লাশটি নিতে দেরি হচ্ছে। তার স্বজনদের ঠিকানা খোঁজার চেষ্টা করা হচ্ছে, ঠিকানা ডাওয়া গেলে লাশটি তার স্বজনদের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হবে

শেয়ার করুন