রাবিতে গুলিতে ছাত্রলীগ নেতা নিহত

0
46
Print Friendly, PDF & Email

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী হলে নিজ কক্ষে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হয়েছেন এক ছাত্রলীগ নেতা।
 
নিহত রুস্তম আলী রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানার সাধনপুর গ্রামের শাহজাহান আলী আকন্দের ছেলে তিনি।

মতিহার থানার ওসি এসএম রেজাউল করিম জানান, শুক্রবার জুমার নামাজের সময় সোহরাওয়ার্দী হলের ২৩০ নম্বর কক্ষে গুলিবিদ্ধ হন রুস্তম। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর তার মৃত্যু হয়।

ওসি রেজাউল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “নিজকক্ষে একা পড়াশোনা করছিলেন রুস্তম আলী। এসময় হঠাৎ তিনটি গুলির শব্দ শুনতে পান পাশের কক্ষের শিক্ষার্থীরা। ২৩০ নম্বর কক্ষে গিয়ে তারা রুস্তমকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন।

“তারা রুস্তমকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।”

রাজশাহী মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে জরুরি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক দেবাশীষ বিশ্বাস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, রুস্তমের বুকের ডান দিকে গুলি লেগে কাঁধের পেছন দিয়ে বের হয়ে গেছে।

তাৎক্ষণিকভাবে কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে সে বিষয়ে পুলিশ কিছু জানাতে না পারলেও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতারা এঘটনার সঙ্গে ইসলামী ছাত্র শিবিরের সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ আল তুহিন অভিযোগ করেন, বৃহস্পতিবার শিবিরের বিশ্ববিদালয় শাখার সভাপতি আশরাফুল আলম ইমন ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতার মোবাইল ফোনে মেসেজ পাঠিয়ে হুমকি দেন।

“এর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ছাত্রলীগ, যাতে রুস্তম আলীও ছিলেন।”

তাই ছাত্র শিবিরকর্মীরাই রুস্তমকে গুলি করতে পারে বলে তার ধারণা।

তুহিন বলেন, কয়েকদিন আগে মাদার বখশ হলে একজন ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে শিবির সন্দেহে দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনা ঘটে।

ওই ঘটনার জেরে ছাত্রলীগ নেতাদের শিবিরের পক্ষ থেকে হুমকি দেয়া হয় বলে মনে করেন ছাত্রলীগের এই নেতা।

তবে এই অস্বীকার করে শিবিরের মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউদ্দিন বাবুল বলেন, “এই হামলার সঙ্গে শিবিরের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। ছাত্রলীগের নিজেদের কোন্দলে এই ঘটনা ঘটতে পারে।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর তারিকুল হাসান মিলন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বিষয়টি অনাকাঙ্ক্ষিত এবং আতঙ্কের। আমরা পুলিশকে ঘটনা খতিয়ে দেখতে বলেছি।”

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান রানা জানান, রুস্তমের কক্ষের জানালা খোলা ছিল। বাইরে থেকে তার উপর গুলি করা হয়েছে।”

শেয়ার করুন