‘ক্লান্ত’ কমিশনে বিদেশ ভ্রমণের হিড়িক

0
49
Print Friendly, PDF & Email

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন শেষ হতে না হতেই বিদেশ ভ্রমণের হিড়িক পড়েছে নির্বাচন কমিশনে। চলতি মাসে একজন এবং মে মাসে দু’জন কমিশনার বিদেশ ভ্রমণে যাচ্ছেন। তবে তারা কমিশনের কাজে নাকি এতোগুলো চ্যালেঞ্জিং নির্বাচন সামাল দিয়ে হাঁপিয়ে উঠেছেন বলে একটু প্রমোদ ভ্রমণে যাচ্ছেন তা নিশ্চিত করে জানা যাচ্ছে না।
 
নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯টায় নিউইয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব সিরাজুল ইসলাম। সেখানে তিনি জাতীয় পরিচয়পত্র বিষয়ে একটি সেমিনারে অংশ নেবেন। আর দেশে ফিরবেন আগামী ১২ এপ্রিল।
 
চলতি মাসের ১৭ তারিখে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) জাবেদ আলী পারিবারিক সফরে অস্টেলিয়া যাচ্ছেন। সেখানে ন্যাশনাল আইডি (জাতীয় পরিচয়পত্র) প্রকল্প নিয়েও কিছু কাজ নাকি রয়েছে। আগামী ১৮ মে তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।
 
এছাড়া আগামী মে মাসের ১৫ তারিখে ফ্রান্স এবং লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ। তিনি ১৬ মে থেকে ২৫ মে পর্যন্ত ফ্রান্সে এবং সেখান থেকে যুক্তরাজ্য যাবেন। সেখানে ২৬  মে থেকে ০২ জুন পর্যন্ত অবস্থান করবেন। এরপর দেশে ফিরবেন। সফরকালের তিনি জাতীয় পরিচয়পত্র প্রকল্পের নানান বিষয় নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করবেন। ইতোমধ্যে তার সফরের সবকিছু চূড়ান্ত হয়ে গেছে।
 
শাহনেওয়াজের সফরসঙ্গী হিসেবে যাচ্ছেন নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেছুর রহমান। জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) সুলতানুজ্জামান মোহাম্মদ সালেহউদ্দিন, নির্বাচন কমিশন সচিবলয়ের কর্মকর্তা মো. সাইফুল হক চৌধুরীও তাদের সঙ্গে যাবেন।
 
পহেলা মে সুইজারল্যান্ডে যাচ্ছেন নির্বাচন কমিশনার আবু হাফিজ। তবে তিনি কী কাজে যাচ্ছেন এ ব্যাপারে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।
 
এদিকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) মোহাম্মদ আবদুল মোবারক ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারিতে নির্বাচন কমিশনার হিসাবে যোগ দেয়ার পর এখন পর্যন্ত বিদেশ ভ্রমণে যাননি। যদিও তিন নির্বাচন কমিশনার ও সিইসি এরমধ্যেই কয়েকটি দেশ ভ্রমণ করেছ্নে।
 
নির্বাচন কমিশন সূত্র আরো জানায়, পর্যাক্রমে ইসি সচিব, অতিরিক্ত সচিব, যুগ্মসচিব, ভোটার তালিকা প্রকল্প পরিচালক ও সংশ্লিষ্ট জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা বিদেশ ভ্রমণের সুযোগ পাবেন বলে জানা গেছে।
 
প্রসঙ্গত, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মাঝপথে গত ৩ মার্চ ব্যক্তিগত সফরের কথা বলে এক মাসের ছুটিতে নিউইয়র্ক গেছেন সিইসি কাজী রকিবউদ্দিন আহমদ। ওই সময় বিষয়টি নিয়ে মিডিয়াতে সমালোচনার ঝড় ওঠে। তিনি এ সরকারের আমলে আর দেশে ফিরবেন না এমন গুঞ্জনও শোনা যায়। এরপরই সিইসি নিউইয়র্ক থেকে নির্দেশনা দিয়ে কমিশনে ইমেইল করে। তারপর শেষ ধাপের ভোটগ্রহণের একদিন আগে তিনি তার উদ্বেগের কথা জানিয়ে এবং দিক নিদের্শনা দিয়ে ভারপ্রাপ্ত সচিব সিরাজুল ইসলামকে চিঠি লেখেন।

শেয়ার করুন