সাতক্ষীরার সাত উপজেলায় জামানত হারালেন ৩৮ প্রার্থী

0
202
Print Friendly, PDF & Email

পাঁচ ধাপে সাতক্ষীরার সাতটি উপজেলায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী  ১১ জন  প্রার্থী যথেষ্ট সংখ্যক ভোট না পাওয়ায়  তাদের জামানত হারিয়েছেন। এই নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে  ১৩  জন এবং মহিলা  ভাইস চেয়ারম্যান  ১৪ পদে জন  প্রাথীও তাদের জামানত হারিয়েছেন।  
প্রথম ধাপে ১৯ ফেব্রুয়ারি আশাশুনির নির্বাচনে যারা জামানত হারালেন তারা হলেন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মো. হাফিজুর রহমান, জাতীয় পার্টির সম সালাহউদ্দিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপির শায়লা পারভিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী পারভিন নাসিমা আকতার শিল্পী, স্বতন্ত্র জাহিদুল ইসলাম তোতা  এবং আওয়ামী লীগের মতিয়ার রহমান ও  মাহফিজুল ইসলাম।
দ্বিতীয় ধাপে ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত শ্যামনগরের নির্বাচনে জামানত হারানো চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেন ইসলামী আন্দোলনের আবুবকর সিদ্দিক এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুই স্বতন্ত্র প্রার্র্থী পাপিয়া হক ও নুরজাহান পারভিন। অপরদিকে তৃতীয় ধাপে ১৫ মার্চের নির্বাচনে  কালিগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি প্রার্থী এড. আবদুস সাত্তার ও বিজেপির শাহাদাত হোসেন জামানত  হারিয়েছেন। এই নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী  প্রার্থী জেবুন্নেসা জেবু,  একই দলের শাহিদা সুলতানা ও বিএনপির ডলি ইসলাম এবং একই দলের শরিফুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের শেখ রিয়াজউদ্দিন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল হামিদ জামানত হারান।
এদিকে চতুর্থ পর্যায়ে গত ২৩ মার্চ কলারোয়ায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনে জামানত হারানো  চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বিএনপির অধ্যাপক বজলুর রহমান ও জাসদের সহিদুল ইসলাম।  এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপির রাশিদা আসলাম, জামায়াতের সুফিয়া কোরবান এবং জামায়াতের শেখ ইমান আলি জামানত খুঁইয়েছেন ।  
সর্বশেষ  গত ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত  পঞ্চম দফা নির্বাচনে সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে জামানত হারিয়েছেন বিএনপির আবদুর রউফ, স্বতন্ত্র শেখ মনিরুজ্জামান মিঠু এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে ওয়ার্কার্স পার্টির এড. আল মাহমুদ পলাশ, বিএনপির ইউসুফ আলি ও স্বতন্ত্র রিন্টু কুমার মিত্র। অপরদিকে তালা উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী বিএনপির বদরুজ্জামান মোড়ল, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ওয়াজেদ আলি বিশ্বাস, জাতীয় পার্টির রেহেনা আকতার, বিএনপির রেহেনা বেগম ও মমতাজ বেগম এবং আওয়ামী লীগের মুস্তারি সুলতানা পুতুল জামানত হারিয়েছেন। এ ছাড়া দেবহাটার নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী বিএনপির মহিউদ্দিন সিদ্দিকী, স্বতন্ত্র রিয়াজুল ইসলাম এবং বিএনপির  শাহনাজ পারভিন  তাদের জামানত হারিয়েছেন ।  
জেলা নির্বাচন অফিসার আবুল হোসেন জানান  নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী  প্রদত্ত ভোটের এক অষ্টমাংশ না পেলে যে কোনো প্রার্থী তার জামানত হারাবেন। এই হিসাবে সাতক্ষীরার সাতটি উপজেলার ২১টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে যথেষ্ট ভোট না পাওয়ায় ৩৮ জন প্রার্থী তাদের জামানত হারিয়েছেন । 

শেয়ার করুন