সিইসি’র দায়িত্বে থাকার অধিকার নেই

0
45
Print Friendly, PDF & Email

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে নিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার আবদুল মোবারক যে কটুক্তি করেছেন এরপর তার আর ওই পদে থাকার অধিকার নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নামে চার্জশিট দেওয়ার প্রতিবাদে ও মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ডঃ খন্দকার মোশারফ হেসেন, মির্জা আব্বাসসহ বিএনপি নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে এক আলোচনা সভায় গয়েশ্বরচন্দ্র রায় বক্তব্য রাখছিলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ এবং বর্তমান ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার আবদুল মোবারকের অধীনেিআর কোন নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হওয়ার আশা করা যায়না।

গয়েশ্বর রায় বলেন, সরকার ও নির্বাচন কমিশন ভোটারবিহীন নির্বাচন করে যে কলঙ্ক সৃষ্টি করেছেন  এজন্য তা গ্রিনিস বুকে স্থান পাবে।

তিনি বলেন, দেশে খুন, গুম গ্রেপ্তার চলছেই। গ্রেপ্তার হার যেভাবে বেড়েছে তাতে দেশ আজ বৃহত্তর কারাগারে পরিনত হয়েছে। এই কারাগারের রক্ষীরা হচ্ছেন ৩০০ এমপি আর জেল সুপার হলেন শেখ হাসিনা।

নেতা-কর্মীদের মুক্ত করতে হলে কারাগার ভাঙ্গতে হবে। কারাগার ভাঙ্গতে না পারলে নেতা-কর্মীদের মুক্ত করা যাবে না। এই কারাগার ভাঙ্গতে হলে সহায়-সম্বলহীন সবহারাদের নিয়ে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

কেননা যারা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে থাকেন তাদের নিয়ে আন্দোলন করে কোন ফল পাওয়া যাবে না। এজন্য সবহারাদের একত্রিত করে কঠোর আন্দোলনে নামতে হবে।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় জাতীয়তাবাদী জিয়া সমাজক‌ল্যাণ পরিষদের আয়োজনে প্রতিবাদ সভায় গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, হাইকোট-সুপ্রিমকোট- সবকোট মুজিব কোটের ভেতরে।

প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে  উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির (জাপা) কাজী জাফর আহমেদ। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক এমপি হেলেন জেরিন খান, সাবেক এমপি রাশেদা বেগম হীরা, মঞ্জুর হোসেন ইসা, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার হায়দার আলী প্রমুখ।

শেয়ার করুন