শাবনূরের দেশে ফেরা অনিশ্চিত!

0
73
Print Friendly, PDF & Email

শাবনূর কি সত্যিই দেশে ফিরবেন? তার বাবা শাহজাহান চৌধুরী বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান জুনেই দেশে ফিরছেন শাবনূর। কিন্তু এ কথা বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছে শাবনূর ভক্তদের। কারণ এর আগে একাধিকবার ঘোষণা দিয়েও ফেরেননি তিনি।
তাছাড়া অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্বও লাভ করেছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় এই নায়িকা। গত বছরের ২৯ ডিসেম্বর সিডনির ওব্যান হাসপাতালে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। এরপর থেকে বারবার দেশে আসার ঘোষণা দিয়েও শেষ পর্যন্ত নানা অজুহাতে সে দেশেই রয়ে গেছেন শাবনূর। তাই তার দেশে ফেরা নিয়ে বরাবরের মতো অনিশ্চয়তা রয়েই গেছে।
এ বিষয়ে জানতে শাবনূরের বাবা শাহজাহান চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আসলে চলতি বছরের জানুয়ারিতেই পুত্রকে নিয়ে ঢাকায় ফেরার কথা ছিল তার। কিন্তু চিকিত্সকের পরামর্শ অনুযায়ী গত মার্চ পর্যন্ত  পুত্রের ভ্যাকসিন দেওয়ার কোর্স ছিল। পরে এই কোর্স বাড়িয়ে জুন পর্যন্ত করা হয়। জুনের প্রথম সপ্তাহে এই কোর্স শেষ করেই এবার নিশ্চিতভাবে পুত্র আইজেন নেহানকে নিয়ে দেশে ফিরছে  শাবনূর।
শাহজাহান চৌধুরী আরও জানান, ইতিমধ্যে জুনে ঢাকায় শাবনূরের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা এবং আইজেনের আকিকার প্রোগ্রাম চূড়ান্ত করা হয়েছে। এতে মিডিয়াসহ সর্বস্তরের লোকজনকে দাওয়াত দেওয়া হবে। এদিকে শাবনূরের স্বামী অনিক পুত্রের জন্মের সময় থেকে এ পর্যন্ত একবারও অস্ট্রেলিয়া যাননি। বাবা হয়েও এখন পর্যন্ত পুত্রকে দেখেননি তিনি। ব্যবসার কাজে ব্যস্ত থাকার কারণেই নাকি পুত্রকে দেখতে যেতে পারেননি অনিক। একটি সূত্র বলছে, অনিক চেয়েছিলেন ঢাকাতেই সন্তান ভূমিষ্ঠ হবে। কিন্তু শাবনূরের ইচ্ছে ছিল অস্ট্রেলিয়াতেই সন্তান জন্ম দেবেন তিনি। তাহলে জন্মসূত্রে সে দেশের নাগরিক হবে তার সন্তান। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে মন কষাকষিও হয়। অনিকের কথা না রাখায় অভিমান করে তিনি সন্তান জন্মের সময় স্ত্রীর পাশে থাকেননি এবং এখন পর্যন্ত স্ত্রী-পুত্রকে দেখতে অস্ট্রেলিয়া যাননি।
সূত্রটি বলছে, অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাসের চিন্তা শাবনূরের দীর্ঘদিনের। সেখানে তার ছোট বোন ঝুমুর, ভগ্নিপতি, মা এবং ভাই রয়েছেন। ২০০৭ সাল থেকেই ঘন ঘন অস্ট্রেলিয়া যেতেন শাবনূর এবং বছরের বেশির ভাগ সময় সেখানেই কাটাতেন। এ কারণে ওই সময় থেকে চলচ্চিত্রে অনিয়মিত হয়ে পড়েন তিনি। ২০১২ সালে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্ব লাভ করেন শাবনূর। ২০১১ সালের ৬ ডিসেম্বর গোপনে বিয়ে করেন সহ-শিল্পী অনিককে। শাবনূর সন্তান জন্ম দিতে অস্ট্রেলিয়া যান গত বছরের সেপ্টেম্বরে। তখনও মিডিয়ার কাছে বিয়ে এবং অনাগত সন্তানের কথা স্বীকার করেননি তিনি। অবশেষে নভেম্বরে সাংবাদিকদের ফোনে জানান ডিসেম্বরে মা হতে যাচ্ছেন তিনি।
বিয়ে এবং অনাগত সন্তানের কথা গোপন করে এবং বারবার ঘোষণা দিয়েও দেশে না ফেরায় সবার মনে অবিশ্বাসকে তিনি এতটাই  জোরালো করেছেন যে, চলচ্চিত্র জগত্ এবং তার ভক্তরা জুনে তার দেশে ফেরার ঘোষণাকেও এখন বিশ্বাস করতে চাচ্ছেন না। সবার কথায় শাবনূরের দেশে ফেরার বিষয়টি এখনো অনিশ্চিত।

শেয়ার করুন