৩৫০ কোটি মানুষের সমান সম্পদের মালিক ৮৫ ধনী

0
99
Print Friendly, PDF & Email

বিশ্বজুড়ে অসাম্য বাড়ছে। পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ৮৫ ব্যক্তির কাছে বিশ্বের অর্ধেক জনসংখ্যার সম্পদের সমপরিমাণ সম্পদ রয়েছে। সুইজারল্যান্ডের অবকাশ যাপন কেন্দ্র দাবোসে বার্ষিক সম্মেলনের আগে বিশ্বের প্রভাবশালী আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতারা এই সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছেন। আগামী ২২ থেকে ২৫ জানুয়ারি বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের ওই সম্মেলন হবে। আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা অক্সফাম সম্প্রতি একটি প্রতিবেদনে বিশ্বের আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে এই অসাম্যের চিত্র তুলে ধরেছে। ‘ওয়ার্কিং ফর দ্য ফিউ’ শিরোনামের প্রকাশিত এই প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজনৈতিক শক্তিকে ব্যবহার করে ধনশালী ব্যক্তিরা অর্থনৈতিক ব্যবস্থাকে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করেন। তাতেই ফুলে-ফেঁপে ওঠে তাঁদের বিত্তবৈভব। প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে অক্সফামের প্রধান নির্বাহী উইনি বাইয়ানিমা বলেন, একটি দ্বিতল বাসে খুব সহজে ধরবে এমনসংখ্যক মানুষের সম্পদের পরিমাণ পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার অর্ধেক, অর্থাৎ দরিদ্রতম প্রায় ৩৫০ কোটি মানুষের সম্পদের সমান। এটা একুশ শতকের বিস্ময়। উইনি আরও বলেন, ‘সম্পদ ও ক্ষমতা মাত্র কয়েকজন মানুষের হাতের মুঠোয় বন্দী হয়ে যাচ্ছে। আমরা এমন এক সময়ের দিকে যাচ্ছি, যেখানে সাম্য একটি স্বপ্নের মতো মনে হবে।’ অক্সফাম জানায়, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ৮৫ জন মানুষের কাছে ১ দশমিক ৭০ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার রয়েছে। এঁদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থসম্পদের মালিক মেক্সিকোর টেলিকম ব্যবসায়ী কার্লোস স্লিম হেলুর কাছে। তাঁর সম্পদের পরিমাণ সাত হাজার ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার। এর পরই রয়েছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস, যাঁর সম্পদের পরিমাণ ছয় হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার। এই ধনীদের কাতারে আরও রয়েছেন ওয়ারেন বাফেট (পাঁচ হাজার ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার), গুগলের প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ (দুই হাজার ৩০০ কোটি) প্রমুখ। গার্ডিয়ান।

শেয়ার করুন