শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ধ্বংসকারীরা সভ্যতার শত্রু: শিক্ষামন্ত্রী

0
85
Print Friendly, PDF & Email

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদনির্বাচন প্রতিরোধের নামে পেট্রল ও গান পাউডার দিয়ে স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা পুড়িয়ে দেওয়ায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। আজ শনিবার দুপুরে শিক্ষামন্ত্রী তাঁর বাসভবনে এক জরুরি ব্রিফিংয়ে এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন। গতকাল শুক্রবার দিন ও রাতে দেশের বিভিন্ন জায়গায় শতাধিক স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় মন্ত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবিরসহ বিএনপি জোট নির্বাচন ঠেকানোর নামে একেকটি এলাকার শিক্ষা, সংস্কৃতি, সভ্যতা ও উন্নয়নের প্রাণকেন্দ্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুড়িয়ে দিচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তি পরিকল্পিতভাবে এসব প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করছে। তারা একাত্তরের পরাজয়ের প্রতিশোধ নিচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এদেরকে রুখতে হবে।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, জামায়াত-শিবির চক্র মুক্তিযুদ্ধে পরাজয়ের প্রতিশোধ নিতে কয়েক মাস ধরে বাস-ট্রাকে পেট্রলবোমা মেরে মানুষ হত্যা করছে। রেললাইন উপড়ে ফেলছে, গাছ কেটে রাস্তা অবরোধ করছে, শাক-সবজি-মুরগি-গরুর ট্রাকে বোমা মারছে। তারা এবার আক্রমণ চালাচ্ছে আমাদের স্কুল-কলেজের ওপর। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভবন, বইপুস্তক, কাগজপত্র, কম্পিউটারসহ সবকিছু পুড়িয়ে ছাই করে দিচ্ছে।

নাহিদ বলেন, ভোটকেন্দ্র তো এক দিনের জন্য, স্কুল-কলেজ চিরদিনের। এগুলো রক্ষা করতে হবে। তিনি স্কুল-কলেজের আশপাশের ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক, অভিভাবক, এলাকাবাসীসহ সর্বস্তরের মানুষকে নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রক্ষা করার আহ্বান জানান। মন্ত্রী বলেন, তাদের লক্ষ্য শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করা। এ দেশকে একটি বর্বর জাতিতে পরিণত করা। এসব সভ্যতাবিনাশী ধ্বংসযজ্ঞের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘এভাবে চলতে পারে না। 

শেয়ার করুন