বেলা ১টায় ৩, চারটায় ৭০ শতাংশ ভোট কাস্টিং

0
59
Print Friendly, PDF & Email

ব্যালট বাক্স ছিনতাই ও পুড়িয়ে দেয়া ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটগ্রহণ বন্ধ থাকলেও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুরের তিনটি আসনে মাত্র ১৫ থেকে ১৬ শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে। সরেজমিনে ঘুরে এমনটিই জানা গেছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসনে(পীরগঞ্জ)উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ (ইউএনও) আওয়ামী লীগের যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ভোট কেন্দ্র দখল করে নিজেরাই সিল মারে। ফলে বেলা ১টার ৩ শতাংশ ভোট কাস্টিং বিকেল ৪টায় হয়ে যায় ৭০ ভাগের ওপরে।

সরেজমিনে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, কোনো কেন্দ্রেই ভোটার উপস্থিতি ৭০ ভাগ হওয়ার মতো ছিল না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও বসে বসে অলস সময় কাটিয়েছেন।

পীরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, “বেলা ১টার পরে সমস্ত কেন্দ্র দললে নেয় আওয়ামী লীগ কর্মীরা। বেলা আড়াইটার মধ্যেই ইউএনও নির্দেশ দেয় ব্যালট বাক্স নিয়ে যাওয়ার জন্য। সেখানে গিয়ে প্রিজাইডিং অফিসারদের ভয়ভীতি দেখিয়ে জোড় করে সই নিয়েছে। নতুন করে ব্যালটে সিল দিয়েছে। কথা না শুনলে চাকুরি যাওয়ার হুমকি দিয়েছে।”

পীরগঞ্জের ধুলগাড়ি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইটিং অফিসার শহিদুল ইসলাম সেবু মন্ডল জানান, তার কেন্দ্রে মোট ভোটার ছিল দুই হাজার তিনশ। বেলা ১টা পর্যন্ত ভোট পড়েছিল মাত্র ৮৫টি। কিন্তু ১টার পরপরই রংপুর ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আমাদের সবাইকে জিম্মি করে নিজেরাই টেবিলে বসে সিল মারা শুরু করে। মুহূর্তেই ভোট কাস্ট হয়ে যায় ৭৭ ভাগ। আমি নিজে তাতে সই করতে না চাইলেও চাকুরি যাওয়ার ভয় দেখিয়ে সই নিয়েছে তারা। তিনি আরো বলেন, একই অবস্থা ছিল পীরগঞ্জের প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্রে।

শেয়ার করুন