জনসভা নেই, দ্বারে দ্বারে প্রার্থীরা

0
65
Print Friendly, PDF & Email

নির্বাচনের আর মাত্র চারদিন বাকি। রাজশাহী বিভাগে নির্বাচনী এলাকায় প্রচারণা চলছে তোড়জোর ভাবেই। তবে নেই নির্বাচনী আমেজ। নেই চিরচেনা সেই উৎসব মুখরতা। তবুও ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দশম জাতীয় নির্বাচন।

আগের নির্বাচনগুলোতে বিভিন্ন এলাকায় সমাবেশ করে প্রার্থীরা নির্বাচনী প্রচারণা চালালেও এবার মানুষের বাড়ি, গ্রামে অথবা বাজারের দোকানে দোকানে গিয়ে প্রচারণা চালাতে দেখা যাচ্ছে। প্রার্থীরা প্রচারণা চালালেও এ নির্বাচন নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে কোনো উৎসাহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।

রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসের তথ্য অনুযায়ী রাজশাহী বিভাগের মোট ৮টি জেলায় ৩৯টি আসন আছে। এর মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে ১২টি আসনে। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ২৭ জন প্রার্থী। নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া ১২টি আসনে ৩৩ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে মাঠে নেমেছেন।

যেসব আসনে নির্বাচন হচ্ছে সেগুলো হচ্ছে- বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে নুরুল আলম বাচ্চু (লাঙল) ও একেএম রেজাউল করিম তানসেন (মশাল), বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনে মুহাম্মদ আলতাফ আলী (লাঙল) ও এটিএম আমিনুল ইসলাম (বাইসাইকেল)।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (গোমস্তাপুর-ভোলাহাট-নাচোল) আসনে গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস (নৌকা) মোহাম্মদ আলাউদ্দীন (টেলিভিশন) এবং খুরশিদ আলম (আনারস)।

নওগাঁ-৩ (বদলগাছি-মহাদেবপুর) আসনে আকরাম হোসেন চৌধুরী (নৌকা) ও ছলিম উদ্দিন তরফদার (কলসী), নওগাঁ-৪ (মান্দা) আসনে এমাজউদ্দিন প্রামাণিক (নৌকা), এনামুল হক (লাঙল), সাইদুর রহমান (বাইসাইকেল) ও আফজাল হোসেন (হেলিকপ্টার), নওগাঁ-৫ (সদর) আসনে আবদুল মালেক (নৌকা) ও রফিকুল ইসলাম রফিক (কলসী) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে আয়েন উদ্দিন (নৌকা), শাহাবুদ্দিন (লাঙল) ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মেরাজ উদ্দীন মোল্লা (কলসী), রাজশাহী-৬ (চারঘাট-বাঘা) আসনে শাহরিয়ার আলম (নৌকা) ও রাহেনুল হক রায়হান (প্রজাপতি) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নাটোর-৩ (সিংড়া) আসনে জুনাইদ আহমেদ পলক (নৌকা) ও মিজানুর রহমান (হাতুড়ি) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সিরাজগঞ্জ-৫ (বেলকুচি-চৌহালী) আসনে আবদুল মজিদ মোল্লা (নৌকা), আবু বক্কর সিদ্দিক (লাঙল) আবুল হাসনাত গোফরান (বাইসাইকেল) ও আতাউর রহমান (দোয়াত কলম) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

পাবনা-১ (সাথিঁয়া, বেড়া উপজেলার বেড়া পৌরসভা ৪টি ইউনিয়ন) আসনে শামসুল হক টুকু (নৌকা), নজরুল ইসলাম (হাতুড়ি), ইয়াছিন আরাফাত (বাইসাইকেল) ও অধ্যাপক আবু সাইয়িদ (তালা), পাবনা-৩ (চাটমোহর, ভাঙ্গুরা ও ফরিদপুর) আসনে মকবুল হোসেন (নৌকা), খায়রুল ইসলাম (কবুতর) ও আবুল কালাম আজাদ (আনারস) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া আয়েন উদ্দিন (নৌকা) নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন রাজশাহী জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহাবুদ্দিন বাচ্চু (লাঙল) ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীপ্রার্থী মেরাজ উদ্দীন মোল্লা (কলসী)। নির্বাচনী মাঠে জোর প্রচারণা শুরু করেছেন ওই তিন প্রার্থী।

নির্বাচনী প্রচারণায় এ আসনের তিন প্রার্থী মাঠে মাঠে ছুটে বেড়াচ্ছেন। গ্রামের প্রতিটি বাড়ি বাড়ি নিজেদের সমর্থকদের নিয়ে ছুটে বেড়াচ্ছেন।

পবা উপজেলার নওহাটা পৌর এলাকার হুমায়ন কবির জানান, নির্বাচন নিয়ে মানুষের মধ্যে কোনো উৎসাহ নেই। নির্বাচনের দিন যতো কাছে আসছে ততোই উৎকণ্ঠা বাড়ছে।

নওহাটা বাঘহাটি এলাকার নওহাটা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি (ভো.) বিদ্যালয়ের সুপারেনটেনডেন্ট আবদুল হান্নান চৌধুরী জানান, ভোটকে ঘিরে প্রথমের দিকে মানুষের কোনো আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। প্রার্থীরা তাদের কর্মীদের নিয়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে।

রাজশাহী-৬ (চারঘাট-বাঘা) আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে মনোনয়ন পাওয়ায় শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রাহেনুল হক রায়হান প্রজাপতি প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

শেয়ার করুন