জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রার্থী তালিকায় আরও তিনজনের নাম অন্তর্ভুক্ত

0
296
Print Friendly, PDF & Email

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ দিয়ে তিন প্রার্থীর নাম প্রার্থী তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। হাইকোর্টের আদেশে কমিশন গতকাল রোববার তাঁদের নাম অন্তর্ভুক্ত করে। একই সঙ্গে নতুন করে সংশ্লিষ্ট আসনের ব্যালট পেপার ছাপার জন্য সরকারি ছাপাখানায় পাঠানো হয়েছে। এই তিনজনের নাম অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় ১৪৬ আসনের প্রার্থী সংখ্যা ৩৮৯-তে দাঁড়িয়েছে।
তিন প্রার্থী হলেন নীলফামারী-১ আসনে জাতীয় পার্টির বর্তমান সাংসদ জাফর ইকবাল সিদ্দিকী, চট্টগ্রাম-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মাহফুজুর রহমান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জামাল উদ্দিন চৌধুরী। ২৬ ডিসেম্বর হাইকোর্ট তাঁদের নাম প্রার্থী তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার জন্য ইসিকে নির্দেশ দেন।
কমিশন সচিবালয় সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম-৩ আসনের প্রার্থী মাহফুজুর রহমানের বিরুদ্ধে খেলাপি ঋণের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও কমিশন এ-সংক্রান্ত হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিমিটেডের দাবি অনুযায়ী, ব্যাংকটি মাহফুজুর রহমানের কাছে সাড়ে আট কোটি টাকা পাবে।
ব্যাংকের এই অভিযোগ সত্ত্বেও শুরুতে রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমানের মনোনয়নপত্র বৈধ করেন। এর বিরুদ্ধে জাসদের প্রার্থী নুরুল আক্তার আপিল করলে নির্বাচন কমিশন মাহফুজুর রহমানের মনোনয়নপত্র বাতিল করে দেয়। কিন্তু হাইকোর্ট ২৬ ডিসেম্বর প্রার্থী তালিকায় তাঁর নাম অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশ দেন।
এ ছাড়া হাইকোর্ট কুমিল্লা-৮ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী এ এস এম কামরুল ইসলামের মনোনয়নপত্র বৈধ করার নির্দেশ দিয়েছেন। তবে এ বিষয়ে কমিশন এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। বর্তমানে এই আসনের একমাত্র প্রার্থী জাতীয় পার্টির নুরুল ইসলাম। কামরুল ইসলামের নাম প্রার্থী তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হলে এই আসনে ভোট গ্রহণ করতে হবে। সে ক্ষেত্রে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতের সংখ্যা একজন কমে ১৫৩-তে দাঁড়াবে এবং ভোট গ্রহণ হবে ১৪৭টি আসনে।

শেয়ার করুন