শীতে বাহারি কটি

0
87
Print Friendly, PDF & Email

যেকোনো পোশাকের সঙ্গেই পরতে পারেন কটি। মডেল: বেনজীর, পোশাক: ড্রেসিডেল, সাজ: কিউবেলা, ছবি: কবির হোসেনএই ঠান্ডা তো এই গরম। এখনকার আবহাওয়াই এ রকম। ভারী চাদর বেশিক্ষণ পরে থাকা যাচ্ছে না। অন্যদিকে, সারা দিনের দৌড়াদৌড়িতে সোয়েটারও কিছুক্ষণ পর অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এ ক্ষেত্রে কটি হতে পারে একটি চমৎকার সমাধান। হালকা শীত আটকে দেবে। পরেও আরাম পাবেন।যেকোনো পোশাকেই মানিয়ে যায় কটি

পোশাকের ওপর কটি পরার চল অনেক দিন আগে থেকেই চলে আসছে। একসময় শুধু ছেলেরাই কটি পরতেন বলে জানান ফ্যাশন ডিজাইনার এমদাদ হক। তবে এখন মেয়েরা বিভিন্ন পোশাকের সঙ্গে কটি পরছেন। বাজার থেকে কিনতে না চাইলে বাড়িতে থাকা একটু ভারী কাপড় দিয়েও অনায়াসে বানিয়ে নেওয়া যাবে। এমদাদ হক বলেন, পোশাকে কটি ব্যবহার একটি ঐতিহ্যবাহী বিষয়। একসময় সাধারণভাবেই বানানো হতো কটি। তাতে কোনো নকশার বাহুল্য ছিল না। এখন নকশা, কাপড়, কাটছাঁট—সবকিছুতেই পরিবর্তন এসেছে।

একটু ভারী কাপড়ের তৈরি কটিগুলোই আরাম দেবে এ আবহাওয়ায়। যেমন সিল্ক, খাদি, অ্যান্ডি, তসর, ব্রোকেড, ভারী ডুপিয়ান কাপড় ইত্যাদি। পুরানো বেনারসি শাড়িগুলোও এই কাজে ব্যবহার করতে পারেন। কাপড় লাগবে দেড় থেকে দুই গজ। সামনে এক রকম, পেছনে আরেক রকম রঙের কাপড় দিয়ে বানাতে পারেন কটি। লম্বা কতটা হবে তা নিজের স্বাচ্ছন্দ্যের ওপর নির্ভর করবে। টুকিটাকি জিনিস বহন করার জন্য এক জোড়া পকেট থাকতেই পারে। তবে কটির মাপ হতে হবে যথার্থ। বেশি ঢিলেঢালা হলে দেখতে ভালো লাগবে না।

ফ্যাশন ডিজাইনার মায়া রহমান বলেন, ফ্যাশনে কটির ব্যবহার এ সময়ে খুব জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। কটি পরতে সুবিধা। যেকোনো বয়সের জন্যই মানানসই। ড্রেসিডেল কটির নকশায় প্যাচওয়ার্কের কাজ বেশি করেছে। সঙ্গে কাঁথা ফোঁড় ও প্রিন্টের ছোঁয়া আছে। এখন পোশাকে বেশি চকচকে ভাব আনা হচ্ছে না। এ কারণে কটিগুলোয় ম্যাট ফিনিশ দেওয়া হয়েছে।

নিচের অংশে কখনো গোল, কখনো তিন কোনা কাটের ছাঁট দেওয়া হচ্ছে। দুদিকে কাটা থাকছে। শাড়ির সঙ্গে পরতে চাইলে কটির দুদিকের কাটাটি বাড়িয়ে দিন। তাক লাগাতে পারেন বিভিন্ন মাপ, নকশা ও বাহারের বোতাম ব্যবহার করে। বিডস, কাপড়, মুক্তা, পুরোনো কানপাশা প্রভৃতি ব্যবহারে ভিন্নতা তৈরি হবে।

সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে কটি বেশ মানানসই। তবে এ ক্ষেত্রে সালোয়ারটি চাপা বা চুড়িদার হলে দেখতে বেশি ভালো লাগবে বলে জানান মায়া রহমান। শাড়ির সঙ্গে কটি পরলে আঁচলের স্টাইলের দিকে নজর দিন। পুরো আঁচল মেলে না দিয়ে হাতে পেঁচিয়ে বা চিকন করে ভাঁজ করে পরুন। এতে করে পরিচ্ছন্ন লাগবে দেখতে। পাশ্চাত্য পোশাকের কলার থাকলে উঁচু গলার কটি না পরাই ভালো।যেকোনো পোশাকেই মানিয়ে যায় কটি

শেয়ার করুন