শীর্ষ আওয়ামী লীগ নেতাদের মনোনয়ন বাণিজ্য!

0
34
Print Friendly, PDF & Email

দলীয় মনোনয়ন পাইয়ে দেবার কথা বলে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কাছ থেকে তারা লুটে নিচ্ছেন কোটি কোটি টাকা। বিরোধী দলহীন নির্বাচনে নিশ্চিত বিজয় আশা করে মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও টাকার বিনিময়ে দলের টিকেট পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। দলের বিভিন্ন সূত্র মনোনয়ন বাণিজ্যের এই খবর নিশ্চিত করেছেন ডিনিউজের কাছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আওয়ামীলীগের শীর্ষ স্থানীয় অর্ধ-ডজন নেতার বাসায় এখন রাতদিন সমান ব্যস্ততা। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের চা আপ্যায়নে হিমশিম খাচ্ছেন এসব নেতার বাড়ি বা অফিসের ব্যক্তিগত কর্মীরা। পদ্মাপাড়ের একটি জেলার আওয়ামী লীগের একজন শীর্ষ স্থানীয় নেত্রীর বাসভবনে চলছে ঈদের আনন্দ। আশে পাশে নেতা কর্মীদের ভিড় দেখলেই মনে হয় যেন মনোনয়ন বাজার বসেছে সেখানে।

নরসিংদী থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী এক নেতা বুধবার ওই নেত্রীর বাসভবনের সামনে হতে ডিনিউজকে জানান, মনোনয়নের জন্য নেত্রীর দোয়া নিতে এসেছি। তিনি বলেন, নেত্রী মনোনয়ন পাইয়ে দেবার প্রতিশ্রতি দিয়েছেন। তবে বিপরীতে যা দাবি করেছেন তা আমার পক্ষে মেনে নেওয়া সম্ভাবপর নয়।

তিনি আরো বলেন, ‘দেখছি অনেকেই নেত্রীর দাবি পূরণ করছেন। জানি না এরা মনোনয়ন পাবেন কিনা। তবে আমি কিছুর বিনিময়ে মনোনয়ন নিতে রাজি নই।’

আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ঢাকা বিভাগের সীমান্ত জেলার এক নেতাকে হাসি মুখে বের হয়ে এসে বাইরে অপেক্ষমান নেতা-কর্মীদের এলাকায় গিয়ে ভোট চাইতে নির্দেশ দেন। সাথে সাথে সেখানে উল্লাস শুরু হয়ে যায়। এভাবে অনেক নেতাকেই হাসি মুখে বের হয়ে আসতে দেখে যায়।

ওই আওয়ামী লীগ নেত্রীর এক স্টাফ নাম প্রকাশ না করার শর্তে ডিনিউজকে বলেন, ‘ম্যাডাম ২০-২৫ জনের মনোনয়ন পাইয়ে দেবার প্রতিশ্রতি দিয়েছেন। তবে সবাই মনোনয়ন পাবেন কিনা তা নিশ্চত নয়।’

বুধবার পাকিস্তানপন্থী এক আওয়ামী লীগ নেতার বাসভবনেও দেখা যায় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ভীড়। সাদা, শুভ্র বেশ দাড়ি এই নেতার বাসভবনের সামনে কথা হয় একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাথে। তারা জানান, ‘মনোনয়ন পাবার জন্য লবিং করছি। ওই নেতার নাম উল্লেখ করে বলেন, উনি খুব ক্ষমতাবান ব্যক্তি এবং প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন। তাই উনি চাইলে নেত্রী মনোনয়ন দেবেন এই বিশ্বাস থেকেই উনাকে কিছু দিচ্ছে।’

বুধবার আওয়ামী লীগের প্রায় ডজন খানিক নেতার বাসভবনে যেয়ে দেখা মেলে এমন অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশীদের।  বঙ্গবন্ধুর আত্মীয় এক আওয়ামী লীগ নেতা, প্রেসিডিয়ামের এক প্রবীণ সদস্য, বরিশাল বিভাগের এক শীর্ষ নেতা, নোয়াখালীর এক আলোচিত নেতাসহ বেশ কয়েকজন নেতার পিছুনে টাকা ঢালছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। এসব নেতারা মনোনয়ন নিতে আদৌ পারবেন কিনা এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামীলীগের একাধিক সূত্র ডিনিউজকে বলেন, টাকা নেবার প্রয়োজন তারা নিচ্ছেন। বিগত দিনগুলিতেও তারা এভাবে মনোনয়নের কথা বলে টাকা পয়সা নিয়েছেন। কিন্তু দলের নেত্রীর কথাই সব। স্বাভাবিক কারণে তাদের কাছে মনোনয়নের তদবির নিয়ে আসে একাধিক নেতারা অধিকাংশ মনোনয়ন পবেন না এটাই স্বাভাবিক।

‘আর মনোনয়ন না দিতে পারলেও তারা টাকা ফেরত দেবেন এমনটি ভাবার কোন অবকাশ নেই। যারা নিচ্ছেন আর যারা দিচ্ছেন এটা তাদের ব্যক্তিগত ব্যপার। এটার সাথে দলের কোন সম্পিক্ততা নেই।’

শেয়ার করুন