দ্রুত সৈন্য মোতায়েন করতে চাচ্ছে ইসি, আজ সিদ্ধান্ত

0
58
Print Friendly, PDF & Email

তফসিল ঘোষণার পরে রাজনৈতিক সহিংসতার পরিপ্রেক্ষিতে দ্রুত মাঠ পর্যায়ে সেনাবাহিনী মোতায়েনের পরিকল্পনা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আজ বৃহস্পতিবার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেবে কমিশন। এদিকে গতকাল ইসি সচিবালয়ের সার্বিক নিরাপত্তা নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের সঙ্গে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) বেনজির আহমেদ বৈঠক করেন।

সেনা মোতায়নের ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) মো. জাবেদ আলী জানিয়েছেন, আজ আইনশৃঙ্খলার বৈঠকে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে। বৈঠকে সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিনিধিকে এব্যাপারে কমিশনের অবস্থান জানান হবে।

ইসি সূত্র মতে, বিগত ২০০১ ও ২০০৮ সালে সেনাবাহিনীকে গ্রেফতারের ক্ষমতা দেয়া হলেও এবার সেই সুযোগ থাকবে না। কারণ গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংজ্ঞা থেকে সশস্ত্র বাহিনীকে বাদ দেয়া হয়েছে। এখন ফৌজদারি কার্যবিধির ১২৯, ১৩০ ধারা অনুযায়ী সেনাবাহিনী মাঠে কাজ করবে। প্রাথমিক অবস্থায় তারা জেলা সদরে অবস্থান গ্রহণ করবে। ওই জেলার বেসামরিক প্রশাসন (বিজিবি, র্যাব ও পুলিশ) পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হলে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট যাতে দ্রুত সেনাবাহিনীর সহায়তা লাভ করতে পারেন সেজন্য জেলা সদরে গিয়ে তারা অবস্থান নিবে। সূত্র আরো জানান, ভোট গ্রহণের দিন ম্যাজিস্ট্রেটের অধীনে ভোট কেন্দ্রেও দায়িত্ব পালন করবেন সেনা সদস্যরা। ২০০১ সালের আগে দেশের সংসদ নির্বাচনে যেভাবে সেনাবাহিনী নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করেছে, এবারেও একই ধরনের দায়িত্ব দেয়া হবে। বিদ্যমান আইনে নির্বাচনী আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে কাউকে বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করার ক্ষমতা রয়েছে পুলিশের পাশাপাশি আনসার, ব্যাটালিয়ন আনসার, বিজিবি, র্যাব ও কোস্টগার্ড সদস্যদের। সেনাবাহিনীর তা নেই।

ডিএমপি কমিশনারের বৈঠক

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের সঙ্গে গতকাল বৈঠক করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) বেনজির আহমেদ। দেশের সার্বিক পরিস্থিতিতে আইনশৃঙ্খলা, পুলিশের ভূমিকা, নির্বাচন অফিসগুলোতে হামলাসহ সমসাময়িক বিষয়ে আলোচনা করা হয়। সাক্ষাত্ শেষে ডিএমপি কমিশনার বলেন, নির্বাচন কমিশনসহ সারাদেশের সার্বিক নিরাপত্তা দেয়া পুলিশের দায়িত্ব। কমিশন তাদের নিরাপত্তার বিষয়ে যে নির্দেশ দেবে, ডিএমপি তা যথাযথভাবে পালন করবে। এরপর বিজিবির ৪৪ ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক নজির আহমেদ বকশী কমিশনে যান।

পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিকদের

বিষয়ে বৈঠক

বিদেশি পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিকদের ভিসা, নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য সহায়তাসহ অন্যান্য সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আজ বৈঠক করবে কমিশন।

ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধির সাক্ষাত্

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি নীল ওয়াকার সাক্ষাত্ করেছেন। তিনি নির্বাচন কমিশনে আসেন এবং আধঘণ্টা সিইসির রুমে অবস্থান করেন। তিনি বের হওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।

শেয়ার করুন